বৃহস্পতিবার, ১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

বিহারে হুগলির যুবকের রহস্যমৃত্যু

News Sundarban.com :
জুলাই ২৯, ২০২৩
news-image

বিহারে কলেজের ছাত্রাবাসে হুগলির এক যুবকের রহস্যমৃত্যুর ঘটনা সামনে এসেছে। কলেজের লোকজনের দাবি, ছাত্রাবাসের ছাদ থেকে পড়ে ওই ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে, তবে ছাত্রের পরিবার বলছে, তার মৃত্যুর পেছনে রয়েছে গভীর রহস্য। কলেজ কর্তৃপক্ষ কিছু আড়াল করার চেষ্টা করছে। নিহত ছাত্রের স্বজনদের অভিযোগ খতিয়ে দেখছে পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, মৃত ছাত্রের নাম সুরম্য সাঁতরা (২১)।

শেওরাফুলির জগবন্ধু মুখার্জি লেনের বাসিন্দা সুশান্ত সাঁতরার ছেলে সুরম্য ২০২০ সালে উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করেছে এবং মুজাফফরপুরের ডঃ রাজেন্দ্র প্রসাদ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছে। সেখানে কলেজ হোস্টেলে থাকতেন সুরম্য। পরিবারের দাবি, শুক্রবার ভোররাতে কলেজের হোস্টেল থেকে ফোনে জানায়, সুরম্য হোস্টেলের তিনতলার বারান্দা থেকে তিনটে নাগাদ পড়ে গেছে। এরপর তাকে প্রশান্ত মেমোরিয়াল চ্যারিটেবল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

 

এরপর শুক্রবার সন্ধ্যায় পূর্বা এক্সপ্রেসে বিহারে পৌঁছান ছাত্রের মামা। কিন্তু তারা মুজাফফরপুর হাসপাতালে পৌঁছানোর আগেই পাটনা-কলকাতা রাজ্য সড়কের বখতিয়ারপুর এলাকায় একটি অ্যাম্বুলেন্সে ছাত্রের দেহ তাদের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

 

ছাত্রের আত্মীয় তিলক চন্দ্র মুখোপাধ্যায় বলেন, ময়নাতদন্তের পর মৃতদেহটি প্রায় ১০০ কিলোমিটার দূরে হাসপাতালে হস্তান্তর করা হয়েছে। আমরা সন্দেহ করছি এর মধ্যে কিছু গোপন আছে। কিছু চাপা দেওয়ার চেষ্টা চলছে। তিনি দাবি করেন, কলেজ থেকে তাকে বলা হয়েছিল ওই সময় বিদ্যুৎ ছিল না। বলেই পাঁচ-ছয়জন ছাত্র হোস্টেলের ছাদে চলে যায়। কোনওরকমে সেখান থেকে পড়ে যায় সুরম্য। যদিও কলেজ প্রশাসনের বক্তব্যে সন্তুষ্ট নন পরিবারের সদস্যরা।