বৃহস্পতিবার, ১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

উত্তর দিনাজপুরের নিজের দোকানে ব্যবসায়ীকে খুনের ঘটনায় গ্রেফতার এক

News Sundarban.com :
জুলাই ২৩, ২০২৩
news-image

বস্ত্র ব্যবসায়ী অসীম সাহার মৃত্যুর ঘটনার প্রতিবাদে বিজেপির ডাকা ১২ ঘণ্টা ইসলামপুর বন্ধে মিশ্র প্রভাব। সকাল থেকে দোকানপাঠ বন্ধ থাকার পাশাপাশি সরকারি বাস চলাচল ছিল হাতে গোনা। নিত্যযাত্রী থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ নিজেদের কাজে বের হয় অন্যান্য দিনের মতই। কোনওরকম অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে গোটা ইসলামপুর ব্লক জুড়ে মোতায়েন রয়েছে বিরাট পুলিশ বাহিনী। ইসলামপুর শহর-সহ বিভিন্ন জায়গায় পুলিশ রুটমার্চ করে। সকাল থেকে রাস্তায় বন্ধ সমর্থকদের তেমন দেখা মেলেনি। পিকেটিং করতেও দেখা যায়নি বন্ধ সমর্থকদের। ব্যবসায়ীদের নিরাপত্তা-সহ ৬ দফা দাবিতে এদিন ইসলামপুর ব্যবসায়ী সংগঠনের পক্ষ থেকে পুলিশ সুপারের কাছে ডেপুটেশন দেওয়া হয়েছে।

 

উল্লেখ্য, ইসলামপুর শহরের বীজহাট্টি এলাকায় রতন সাহা নামে এক বস্ত্র ব্যবসায়ীর কাছে দীর্ঘদিন ধরে মহঃ তফিক নামে এক যুবক মিথ্যা গল্প সাজিয়ে বকেয়া টাকার নাম করে জোর করে টাকার জন্য ওই ব্যবসায়ীকে চাপ দিতে শুরু করে বলে অভিযোগ। ওই যুবক কিছুদিন আগে তার কিছু বন্ধু বান্ধবকে নিয়ে ওই বস্ত্র ব্যবসায়ীর কাছে টাকা আদায়ের জন্য দোকানে এসে ঝামেলা সৃষ্টি করে। শনিবার সকালে ওই বস্ত্র ব্যবসায়ীর দোকানে মহঃ সাহিল নামে অপর এক যুবক আবার টাকা আদায়ের জন্য ঝামেলা সৃষ্টি করে। তখন দোকান মালিকের ভাগ্নে অসীম সাহা তার প্রতিবাদ করায় তাকে চাকু দিয়ে একাধিক জায়গায় আঘাত করে বলে অভিযোগ। তাকে বাঁচাতে গেলে এই ঘটনায় স্থানীয় অপর এক যুবক আহত হয়। এরপর ওই অভিযুক্ত ওই যুবক ঘটনাস্থল থেকে চম্পট দেয়। আহত অসীমের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজে স্থানান্তরিত করা হয়। পরবর্তী সময়ে শিলিগুড়ির একটি বেসরকারি নার্সিংহোমে মৃত্যু হয় অসীম সাহার (২৮)।

 

ইসলামপুর থানার পুলিশ তদন্ত নেমে অভিযুক্ত মহঃ সাহিলকে গ্রেপ্তার করে। অপরদিকে, অসীম সাহার মৃত্যুর ঘটনার প্রতিবাদে ইসলামপুরের শিবডাঙ্গী এলাকায় বিজেপির দলীয় কার্যালয়ের সামনে ৩১ নং জাতীয় সড়ক অবরোধ করে স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্ব। টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভে সামিল হয় বিজেপির নেতা-কর্মীরা। তাদের অভিযোগ, নিহত অসীম সাহা বিজেপি যুব মোর্চার নগর মণ্ডল কমিটির সম্পাদক ছিলেন।  ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে ইসলামপুর থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী। পুলিশের সঙ্গে বাগ-বিতন্ডায় জড়িয়ে পড়ে বিজেপি কর্মী সমর্থকেরা।