বুধবার, ১৭ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

মৌশুনীর প্রাক্তন তৃণমূল যুব সভাপতি এবারে নির্দল প্রার্থী

News Sundarban.com :
জুলাই ৬, ২০২৩
news-image

নিজস্ব প্রতিনিধি,নামখানা: মৌসুনি গ্রাম পঞ্চায়েতের দুর্নীতি হয়েছে এমনই অভিযোগ তুলে আসন্ন ত্রিস্তর পঞ্চায়েত নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে নির্দলের প্রার্থী হয়েছেন মৌসুনি অঞ্চল প্রাক্তন যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি বীরেন গিরি। ১৯৯৮ সালে তৃণমূল কংগ্রেস প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর দলের সাংগঠনিক বিস্তারে মৌসুনি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় অনবদ্য ভূমিকা ছিল তাঁর।

বাম জমানায় ২০০৮ সালে পঞ্চায়েত নির্বাচনে পঞ্চায়েত স্তরে বিপুল ভোটে জয়ী হোন তিনি। সেই সময় তিনি মৌশুনি অঞ্চল যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি পদ সামলেছেন। ২০১৮ সালে পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে মৌসুনি অঞ্চল তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদকের পথ সামলেছেন তিনি। তিনি অভিযোগ করেছেন ২০১৮ সালে পঞ্চায়েত নির্বাচনের পর তৃণমূল কংগ্রেস বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে মৌসুনি অঞ্চল গঠন করে। কিন্তু মৌসুনি অঞ্চলের প্রধান এবং উপপ্রধান নির্বাচন দলের নিয়ম না মেনেই করা হয়েছে।

তিনি আরো অভিযোগ করেন ২০১৮ সালে পঞ্চায়েত গঠনের পরে মৌসুনি গ্রাম পঞ্চায়েতে একাধিক দুর্নীতি হয়েছে। যার কারণে এই দুর্নীতির প্রতিবাদে তিনি নির্দল প্রার্থী হয়ে ভোটে দাঁড়িয়েছেন। তিনি বলেন এবারের পঞ্চায়েত নির্বাচনে বিরোধীরা পঞ্চায়েত গঠন করবে। ইতিমধ্যে তিনি প্রচার শুরু করে দিয়েছেন। বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচারে তিনি মানুষের সাড়াও পাচ্ছেন।

তবে এ বিষয়ে নামখানা ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি ধীরেন দাস বলেন, দলের কোনো সমস্যা থাকলে তিনি দলের মধ্যে থেকেই সমাধান করতে পারতেন আর যেসব কর্মীরা নির্দল হিসেবে মনোনয়ন জমা করছেন তারা দীর্ঘদিন ধরে দল থেকে দূরে রয়েছেন। তবে এরা তৃণমূল কংগ্রেসের ওপর কোনো প্রভাব ফেলতে পারবে না। আগামী পঞ্চায়েত নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থীরাই জয়ী হবে। নির্দলকে মানুষ ভোট দেবে না।