শনিবার, ২রা জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

মাঙ্কিপক্সে আক্রান্ত হওয়া নিয়ে উদ্বিগ্ন স্বাস্থ্য দফতর

News Sundarban.com :
মে ৩০, ২০২২
news-image

বিশ্বের বহু দেশে মাঙ্কি পক্সের প্রাদুর্ভাবের প্রেক্ষিতে ফের বিপদের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। যদিও এখনও পর্যন্ত এ দেশে মাঙ্কিপক্সে আক্রান্ত হওয়ার কোনও ঘটনা সামনে আসেনি তাও আগাম সতর্ক থাকার নীতি নিয়েছে এ রাজ্যের সরকার।

আবার তামিনাড়ু, কেরালার মত রাজ্যে শিশুদের মধ্যে টম্যাটো ফ্লু নামের এক ধরণের জ্বরের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। যা নিয়ে উদ্বিগ্ন স্বাস্থ্য দফতর। মাঙ্কি পক্সের প্রাদুর্ভাব রুখতে ইতিমধ্যেই বিশেষ সতর্ক বার্তা জারি করা হয়েছে স্বাস্থ্য ভবনের তরফে। সংক্রমণ রুখতে রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর সব মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের মেডিকেল সুপারিটেন্ডেন্ট তথা ভাইস প্রিন্সিপাল, প্রতিটি জেলা ও স্বাস্থ্য জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক এবং কলকাতা পুরনিগমের মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিককে বিশেষ নির্দেশিকা পাঠিয়েছে।

মাঙ্কি পক্সের সতর্কবার্তাঃ

সেই নির্দেশিকায় বলা হয়েছে ওইসব পদাধিকারীরা যেন নিজ নিজ এলাকায় থাকা সব স্বাস্থ্যকেন্দ্রগুলিকে সতর্ক করে দেন ও সব হাসপাতালেই যেন পৃথক আইসোলেশান বেডের ব্যবস্থা আগে থেকে করে রাখেন। পাশাপাশি কলকাতা বিমান বন্দর কর্তৃপক্ষকেও চিঠি দিয়ে আন্তর্জাতিক উড়ানের যাত্রীদের ওপর নজর রাখতে বলা হয়েছে।

আফ্রিকা থেকে আমেরিকা মায় ইউরোপ ও এশিয়াও, বিশ্বের একাধিক দেশে ছড়িয়ে পড়েছে মাঙ্কিপক্স। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের দাবি, মাঙ্কিপক্স রোগটা নতুন নয়। তবে এই রোগ সম্পর্কে খুব একটা স্পষ্ট ধারণা ছিল না বিশ্ববাসীর। আফ্রিকাতে এই রোগের হদিস আগে মিললেও, ইদানীং এমন কিছু দেশে এই রোগ ছড়াচ্ছে, যা নিয়ে বিস্মিত গবেষকরা।

মাঙ্কি পক্সের লক্ষণঃ 

  • আক্রান্তদের শরীরে প্রাথমিক উপসর্গের মধ্যে রয়েছে জ্বর, মাথা যন্ত্রণা, পিঠ ও গায়ে ব্যথার মতো লক্ষণ।
  • হতে পারে কাঁপুনি ও ক্লান্তিও। এর পর দেহের বিভিন্ন লসিকা গ্রন্থি ফুলে ওঠে।
  • সঙ্গে ছোট ছোট ক্ষতচিহ্ন দেখা দিতে থাকে মুখে।
  • ধীরে ধীরে সারা শরীরে ছড়িয়ে পড়ে ফোসকার মতো ক্ষত।
  • বিশেষজ্ঞদের দাবি, আক্রান্ত ব্যক্তির কাছাকাছি থাকলে বেড়ে যেতে পারে সংক্রমণের আশঙ্কা।
  • শ্বাসনালি, ক্ষত স্থান, নাক, মুখ কিংবা চোখের মাধ্যমে এই ভাইরাস প্রবেশ করতে পারে সুস্থ ব্যক্তির দেহে।
  • যৌন মিলনের মাধ্যমেও এই রোগ ছড়িয়ে পড়ে।
  • অর্থাৎ অনেকটাই কোভিডের মতো এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়তে পারে অনেক মানুষের শরীরে।

যদিও স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা মাঙ্কি পক্সের প্রাদুর্ভাব নিয়ে এখনই খুব বেশি চিন্তিত হওয়ার কারণ দেখছেন না। তাঁদের মতে, এই রোগ কোভিডের মতো অতিমারির আকার নেবে না। কেননা, এই ভাইরাস মানুষের কাছে নতুন নয়। এটি ‘স্মল পক্স’-এর সমগোত্রীয়। কোভিডের মতো এই ভাইরাস ততটাও সংক্রমক নয়। এই ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের মৃত্যুর আশঙ্কাও কম।