মঙ্গলবার, ২৭শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

দুই দলের সংঘর্ষে ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠলো বাঁকুড়ার সোনামুখী

News Sundarban.com :
জুলাই ৫, ২০২১
news-image

মৌসুমী চ্যাটার্জী , বাঁকুড়া :

বিজেপি তৃণমূল সংঘর্ষে ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠলো বাঁকুড়ার সোনামুখী। রবিবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে মানিক বাজার গ্রাম পঞ্চায়েতের কাষ্ঠসাজ্ঞা গ্রামে। এদিন দু’পক্ষের মারধোরের ঘটনায় বিজেপির ৭ ও তৃণমূলের ৪ জন গুরুতর আহত। প্রত্যেককেই চিকিৎসার জন্য সোনামুখী গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়।

বিজেপির তরফে দাবি করা হয়েছে তাদের দলের সোনামুখীর বিধায়ক দিবাকর ঘরামি কাষ্ঠসাজ্ঞা গ্রামে আসেন। তাঁর উপস্থিথিতিতেই তৃণমূলের তরফে আক্রমণের চেষ্টা করা হলেও তারা সফল হয়নি। পরে তিনি ফিরে যাওয়ার পরই এক বিজেপি কর্মীর বাড়িতে হামলা ও দলের বেশ কিছু কর্মীকে ব্যাপক মারধোর করা হয়। যদিও তৃণমূলের তরফে তাদের বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে।

সোনামুখীর বিজেপি বিধায়ক দীবাকর ঘরামি পরে আহতদের দেখতে সোনামুখী গ্রামীণ হাসনাতালে যান। সেখানে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেন, ঐ গ্রামে তিনি গেলে তৃণমূল কর্মীরা গো ব্যাক আওয়াজ তোলে। তাঁর গাড়িতেও হামলা চালানোর চেষ্টা হলেও সঙ্গে থাকা নিরাপত্তারক্ষীদের সৌজন্যে তিনি বেঁচে যান। পরে তৃণমূল আশ্রিত দূস্কৃতিরা বিজেপি কর্মীদের একজনের বাড়ি ভাঙ্গচুর ও অন্যান্যদের ব্যাপক মারধোর করে বলে তিনি অভিযোগ করেন।

তৃণমূলের তরফে বিজেপির দাবি সম্পূর্ণ অস্বীকার করা হয়েছে। দলের সোনামুখী ব্লক সভাপতি বিশ্বনাথ মুখোপাধ্যায় বলেন, বিজেপি বিধায়ক প্রতিশ্রুতি পালনে ব্যর্থ। তাই ঐ দলের লোকেরাই তাঁকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখাচ্ছিল। পরে নিজেরাই মারপিটে জড়িয়ে পড়ে। ঐ ঝামেলা থামাতে গিয়ে বিজেপি কর্মীদের হাতে তৃণমূল কর্মীরা আক্রান্ত। একই সঙ্গে বিজেপি বিধায়ককে তৃণমূল কর্মীরা নিরাপদে গ্রাম থেকে বের করে আনে বলে তিনি দাবি করেন।