মঙ্গলবার, ২৭শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বাংলাদেশের গানের চিত্রায়ণে এই প্রথম বাংলা চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় জুটি পরমব্রত ও রাইমা

News Sundarban.com :
মে ১৪, ২০২১
news-image

গোপাল দেবনাথ

বাংলা সিনেমা ও বাংলা গান দুই বাংলা মিলেমিশে বহুকাল ধরেই একাকার হয়ে আছে। এই বাংলার শিল্পী ও কলাকুশলীরা যেমন বাংলাদেশে গিয়ে কাজ করে সুনাম কুড়িয়ে থাকে ঠিক সেই রকমই বাংলাদেশের অভিনেতা অভিনেত্রী সংগীতশিল্পী কলাকুশলীরা এই বাংলায় তাদের প্রতিভা মেলে ধরে মানুষের মন জয় করে। টলিউডের দুই প্রতিভাবান অভিনেতা ও অভিনেত্রী পরমব্রত ও রাইমা এমনিতেই সফল জুটি।  বাংলাদেশের গানের চিত্রায়ণে এই প্রথম অভিনয় করলেন বাংলা চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় জুটি পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় ও রাইমা সেন। শাফকাত আহমেদ দীপ্ত’র কথা ও সুরে টিএম রেকর্ডসের ব্যানারে গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন জনপ্রিয় শিল্পী কৌশিক হোসেন তাপস ও দিলশাদ নাহার কাকলী।

ঈদ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার মিষ্টি প্রেমের গানটির ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার হয়েছে গানবাংলা টেলিভিশনের পর্দায়। এছাড়াও গানবাংলা টেলিভিশনের ফেইসবুক পেজ ও ইউটিউব চ্যানেলেও দেখা যাচ্ছে।  এই গানটি প্রকাশ উপলক্ষে গত বুধবার রাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এক লাইভ আড্ডা অনুষ্ঠিত হয়। এতে অংশগ্রহন করেন গানটির শিল্পী ও কলাকুশলী ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ব্যান্ড তারকা হামিন আহমেদ ও এস আই টুটুল ও গানের টাইটেল স্পন্সর ইভ্যালি’র প্রধান নির্বাহী রাসেল আহমেদ।

আড্ডায় পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় বলেন, “ব্যাক্তিগতভাবে গানবাংলা এবং উইন্ড অব চেঞ্জ নিয়ে বাঙালি হিসেবে গর্বিত। তাই যখন শুনি তাপসের মতো কেউ এ গানটির সাথে যুক্ত রয়েছে তখনই রাজি হয়ে যাই। খুবই মিষ্টি একটি গান, গানটিতে কাজ করার স্মৃতিটিও খুব মিষ্টি। ঈদ উৎসবে গানটি প্রকাশিত হতে যাচ্ছে, তাতে আমি আরও আনন্দিত।”

রাইমা সেন বলেন, গানটাতে অভিনয় করে খুব ভালো লেগেছে। পরমের সঙ্গে আমার একটা দীর্ঘদিনের জুটি আছে। এ জন্য কাজের সময়টাও বেশ কেটেছে। গানটা প্রকাশিত হওয়ার পর আমার মাকে যখন দেখালাম, মা বললেন, এটা কোন ছবির। আসলে এটা সিনেমা না হয়েও সিনেমার মতোই একটা সাড়ে তিন মিনিটের মিউজিক্যাল ফিল্ম। আশা করছি যারা দেখবে তারা খুবই পছন্দ করবেন গানটি।”

গানটিতে কণ্ঠ দেওয়ার পাশাপাশি এর সংগীতায়োজনও করেছেন তাপস। তিনি বলেন, “এটি আমার প্রথম ডুয়েট গান। পুরনো দিনের গানের ফ্লেভারে এটি দীপ্তর অসামান্য সৃষ্টি। এতে আমার সঙ্গে দারুণ কণ্ঠ দিয়েছেন কাকলী। সিনেমেটিক দৃশ্যায়ণে গানটির চমৎকার চিত্রায়ণের জন্য প্রযোজক, নির্মাতা ও কলাকুশলীদের কাছে আমার কৃতজ্ঞতা জানাই।”

গানটির নতুন সংগীতায়োজন ও চিত্রায়ণ নিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন শাফকাত আহমেদ দীপ্ত।
টিএম প্রোডাকশানের ব্যানারে গানটির পরিকল্পনা ও প্রযোজনায় ছিলেন প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারপার্সন ফারজানা মুন্নী।