বুধবার, ৬ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

বাঘের হানায় মৃতের পরিবারের হাতে আর্থিক সাহায্য তুলে দিলেন জেলাশাসক

News Sundarban.com :
নভেম্বর ১, ২০২০
news-image

নিউজ সুন্দরবন ডেস্ক:  লকডাউনের শুরু থেকেই এখনও পর্যন্ত সুন্দরবনের মধ্যে থাকা শুধুমাত্র গোসাবা ব্লক এলাকার প্রায় ১৭ জন মৎস্যজীবীর অকালে প্রাণ গিয়েছে বাঘের আক্রমণে।শুক্রবার সেই ঘটনার পুনরাবৃত্তি হয়েছে স্থানীয় লাহিড়ীপুর গ্রামের বাসিন্দা শশাঙ্ক মন্ডলের মৃত্যু মৃত্যুর ঘটনায়। পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী শশাঙ্ক বাবু কয়েকজন সঙ্গীর সাথে তিনি গিয়েছিলেন সুন্দরবনের ঝিলা ৬ নম্বর জঙ্গল লাগোয়া খাড়িতে কাঁকড়া ধরার উদ্দেশ্যে। সেখানে সঙ্গী সাথীদের সামনেই বাঘ জঙ্গল থেকে বেরিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে ঘাড়ে কামড় বসিয়ে দেয় এবং জঙ্গলে তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করতে থাকলেও মনের জোরেই বাঘের সামনে প্রতিরোধ গড়ে তোলেন সঙ্গীসাথীরা।

বাঘের মুখ থেকে শশাঙ্ক বাবুকে ছাড়িয়ে নিয়ে আসা হয় গ্রামে। যদিও ততক্ষনে মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়ে ওই মৎস্যজীবী।সেই বাঘের হানায় মৃত্যুর ঘটনাটি রাজ্য প্রশাসনের নজরে আসতেই অসহায় পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানানোর পাশাপাশি,সরকারি সাহায্য প্রদানের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।সেই মোতাবেক শনিবার গোসাবার বিডিও অফিসে যান দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার জেলাশাসক পি উলগানাথন।

ছিলেন গোসাবার বিধায়ক জয়ন্ত নস্কর,ক্যানিংয়ের মহকুমা শাসক রবি প্রকাশ মিনা,গোসাবার বিডিও সৌরভ মিত্র। সেখানে সদ্য স্বামী হারা শশাঙ্ক বাবুর বিধবা স্ত্রী সবিতা মন্ডল এর হাতে দু’ লক্ষ টাকার চেক,খাদ্য সামগ্রী সহ বিভিন্ন ধরনের সাহায্য সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়। এবিষয়ে জেলা শাসক পি উলগানাথন বলেন,’আমরা মৃতের পরিবারকে সরকারি সাহায্য তুলে দিয়েছি। ’