বৃহস্পতিবার, ৭ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

পুলিশের সজাগে নাবালিকা বিবাহ বন্ধ হল

News Sundarban.com :
জুলাই ৫, ২০২০
news-image

বিশ্লেষন মজুমদার, ক্যানিং –

পুলিশ প্রশাসন সজাগ থাকায় রবিবার রাতেই বন্ধ হল এক নাবালিকার বিয়ে।ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার বাসন্তী থানার আমঝাড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের ৭ নম্বর করমদিনিবাটি গ্রামে।স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে ৭ নম্বর করমদিনিবাটি গ্রামের বাসিন্দা সপ্তম শ্রেণীতে পাঠরতা এক নাবালিকা পরিবারের সদস্যরা গ্রামেরই বাসিন্দা এক যুবকের সাথে বিয়ে দেওয়ার জন্য ঠিক করেন।রবিবার রাতেই নাবালিকার বিয়ে হওয়ার ছিল।সবকিছুই ঠিকঠাক ছিল। যথা সময়ে বর ও বরযাত্রীরা চলে আসে বিয়ে বাড়িতে।অতিথী অভ্যগতদের ভীড়।মাইকে চলছে সানাই। সচেতন কয়েকজন গ্রামবাসী নাবালিকার বিয়ে হচ্ছে খবর দেয় চাইল্ড লাইনে।খবর পেয়েই চাইল্ড লাইন ও বারুপুর পুলিশ জেলার অধিনস্থ বাসন্তী থানার পুলিশ যৌথ ভাবে করমদিনিবাটি গ্রামে অভিযানে যায়।

বিয়ে বাড়ির সামনে পুলিশ গাড়ি থামতেই হুলস্থুল বেধে যায়।বিয়ে বাড়ির অতিথী অভ্যাগতদের মধ্যে সামাজিক দুরত্ব নেই। আবার অনেকেরই মুখে মাস্ক না থাকায় পুলিশ দেখে ভয় পেয়ে দৌড় ঝাঁপ শুরু করেন অনেকে।পুলিশ ও চাইল্ড লাইন উভয় পক্ষকে বুঝিয়ে বন্ধ করে দেয় নাবালিকার বিয়ে।মেয়ের বয়স ১৮ বছর এবং ছেলের বয়স ২১ বছর পূর্ণ হলে তবেই বিয়ে দেওয়া যাবে।বাল্য বিবাহ আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।এরপর নাবালিকার পরিবারের সদস্যদের সমস্ত কিছু বুঝতে পেরেই মুচলেকা দিয়ে নাবালিকার বিয়ে বন্ধ করে দিতে রাজী হয়ে যায়।অন্যদিকে নাবালিকার পরিবারের সদস্যারা জানায় পুনরায় নাবালিকাকে পড়াশুনা করানোর জন্য বিদ্যালয়ে পাঠাবেন। এমন ভুল আর করবে না। পাশাপাশি এলাকায় যাতে করে এমন নাবালক নাবালিকার বিয়ে না হয় তারজন্য গ্রামবাসীদের কে সচেতনতা করবেন