মঙ্গলবার, ৯ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

কোন দেশের ক্রিকেটের চিত্র বদলে দিয়েছে একটি জুটি

News Sundarban.com :
জুন ২৩, ২০২০
news-image

কোন দেশের ক্রিকেটের চিত্র বদলে দিয়েছে একটি জুটি। সেই জুটির আবার একই সঙ্গে অভিষেক। যারা জিতেছেন অনেক ম্যাচ কিংবা শিরোপা। এক সঙ্গে গড়েছেন রেকর্ডও। নিজেদের করেছেন কিংবদন্তি। ভিভ রিচার্ড-গর্ডন গ্রিনিজ কিংবা সৌরভ গাঙ্গুলি-রাহুল দ্রাবিল তাদেরই একটি।

সৌরভ গাঙ্গুলি ও রাহুল দ্রাবিড় (১৯৯৬, ইংল্যান্ডের লর্ডস) 

লর্ডসে অভিষেক এবং অভিষেক টেস্টে সেঞ্চুরি। এমন কীর্তি সবাই গড়েত পারে না। গাঙ্গুলি ইংল্যান্ডে শুরুর দুই টেস্টেই সেঞ্চুরি করেছিলেন। তার সঙ্গেই অভিষেক হওয়া রাহুল দাব্রিড়ও শুরু করেছিলেন দারুণ। শুরুর দুই ম্যাচেই ফিফটি পেয়েছিলেন তিনি। এরপর এই দু’জন মিলে দেশকে সার্ভিস দিয়ে গেছেন দীর্ঘ সময়।

ভিভ রিচার্ড ও গর্ডন গ্রিনিজ (১৯৭৪, ভারতের ব্যাঙ্গালুরু)

একই টেস্টে ভারতের বিপক্ষে অভিষেক তাদের। গ্রিনিজ প্রথম ইনিংসে খেলেছিলেন ৯৩ পরের ইনিংসে ১০৭ রানের ইনিংস। আর রিচার্ড দ্বিতীয় টেস্ট ১৯২ রানের ইনিংস খেলেছিলেন। দু’জন একই বছর ১৯৯১ সালে অবসর নিয়েছেন। রিচার্ড দেশের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হয়ে। গ্রিনিজ তিনে থেকে। এখনও সেরা পাঁচে আছেন তারা।

শচীন টেন্ডুলকার ও ওয়ার্কার ইউনূস (১৯৮৯, করাচি টেস্ট)

তারা অবশ্যই জুটি নয়। তবে দুই দেশের কিংবদন্তি। শচীন ক্যারিয়ার শেষ করেছেন ওয়ানডে-টেস্টে সর্বোচ্চ রান করে। ওয়ার্কার ইউনূস পাকিস্তানের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ টেস্ট উইকেট সংগ্রাহক।

এবি ডি ভিলিয়ার্স-ডেল স্টেইন: (২০০৪, ইংল্যান্ড)

সাকিব আল হাসান-মুশফিকুর রহিম (২০০৬, জিম্বাবুয়ে)

বাংলাদেশ ক্রিকেটকে এগিয়ে নেওয়ার পেছনে বড় অবদান সাকিব আল হাসান ও মুশফিকুর রহিমের। সাকিব বাংলাদেশ ক্রিকটের সবচেয়ে বড় বিজ্ঞাপন। পরিশ্রম ও পারফরম্যান্স দিয়ে মুশফিকও নিজেকে নিয়ে গেছেন উচ্চতায়। মুশফিক টেস্টের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক, সাকিব আছেন তিনে। আবার ওয়ানডেতে সাকিব দুইয়ে, মুশফিক অল্প রানের ব্যবধানে আছেন তিনে।

মুস্তাফিজুর রহমান ও লিটন দাস (২০১৫, ভারতের বিপক্ষে মিরপুরে)

ওয়ানডেতে একই ম্যাচে অভিষেক তাদের। যদিও ওপরের নামগুলোর সময় তাদের মেলানোর সময় এখনও আসেনি। তবে তামিম ইকবাল বলেছেন, বাংলাদেশ ক্রিকেটের পরবর্তী পঞ্চপাণ্ডব হবেন তারা। সেটা সত্যি হলে ডি ভিলিয়ার্স-ডেল স্টেইনের মতো ব্যাটিং-বোলিং জুটি পাবে বাংলাদেশ।