মঙ্গলবার, ৩রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বাংলার গর্ব মমতা কর্মসূচির অনুষ্টিত হল ক্যানিং মহকুমায়

News Sundarban.com :
মার্চ ১৫, ২০২০
news-image

ক্যানিং – ১২ মার্চ “বাংলার গর্ব মমতা” নিয়ে রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের দ্বিতীয় দফার কর্মসূচি শুরু করেছিল গত ১২ মার্চ।সাংবাদিকদের ডেকে জলযোগের মধ্য দিয়ে সেই অনুষ্ঠানের সূচনা করেছিলেন রাজ্যের সমস্ত বিধায়করা। নির্দিষ্ট সূচি অনুযায়ী সেই ধারাবাহিকতা বজায় রেখে “বাংলার গর্ব মমতা” কর্মসূচির অঙ্গ হিসাবে পুরাতন তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী সমর্থক,বৃদ্ধ,বৃদ্ধা তৃণমূল কর্মীদের কে বিশেষ সম্মান জ্ঞাপনের অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হল রবিবার বিকালে।রাজ্যের সমস্ত বিধায়করা এই কর্মসুচি পালনে উদ্বুদ্ধ হন।রাজ্যের পাশাপাশি রবিবার দুপুরে ক্যানিং পূর্ব,পশ্চিম এবং গোসাবার বিধায়ক সওকাৎ মোল্ল্যা,শ্যামল মন্ডল ও জয়ন্ত নস্কর নিজ নিজ এলাকার দলীয় কার্য্যালয়ে এক বিশেষ আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে সম্মান জ্ঞাপনা অনুষ্ঠানে এলাকার বয়ষ্ক,বৃদ্ধবৃদ্ধাদের কে বিশেষ সম্মানে সম্মানিত করেন।

ক্যানিং মহকুমার সকল বিধায়ক বাংলার গর্ব এই কর্মসুচি পালন করলেও গোসাবার বিধায়ক জয়ন্ত নস্কর একপ্রকার অনুষ্ঠানে একটু বাড়তি কর্মসূচি সংযোজন করেন।
এদিন বিধায়ক জয়ন্ত নস্কর সম্মান জ্ঞাপনা অনুষ্ঠানের শুরুতেই এলাকার যে সমস্ত পুরানো বয়স্ক বৃদ্ধ বৃদ্ধরা কর্মসুচিতে যোগদান করেন প্রথমেই তাঁদের কে করোনা ভাইরাস সম্পর্কে সচেতনতার বার্তদিয়ে সতর্ক করে প্রত্যেকের হাতে স্যানিটাইজার তুলে দেন হাত পরিষ্কার করার জন্য।পাশাপাশি হাত ধোওয়ার ব্যাপারটিও সতর্ক করে দেন বিধায়ক জয়ন্ত।এছাড়াও তার সাথে যে বা যারা সাক্ষাৎ করতে আসছেন তাদের সকলকেই ঠিক একই ভাবে হাতে স্যানিটাইজার তুলে দিচ্ছেন।
বাংলার গর্ব কর্মসুচিতে এমন বাড়তি সংযোজন কেন জিঞ্জাসা করতেই জয়ন্ত বাবু বলেন “বর্তমানে করোনা আতঙ্ক সমগ্র বিশ্ববাসী কম্পমান।এই গোসাবা ব্লক থেকে দেশের অন্যান্য রাজ্য সহ বিদেশেও কাজের সন্ধানে পাড়ী দিয়েছিলেন এলাকার মানুষজন।অনেকেই বাড়ীতে ফিরেছে।আর যাতে করে এই ভাইরাস ছড়িয়ে না পড়ে তার জন্য সতর্কতা সচেতনতা অবলম্বন করে আটকানো যায় তার জন্য এমন কর্মসূচি। পাশাপাশি সাধারণ মানুষজনও এমন হ্যান্ডওয়াশ দিয়ে হাত ধুয়ে সচেতন হলে জীবাণু কে ধ্বংস করা সম্ভব হবে।তাছাড়াও বিধায়ক জয়ন্ত নস্কর বলেন “আমরা সারা বছর মানুষের সুখ দুঃখে সাথী হয়ে তাদের পাশে সর্বক্ষণ রয়েছি। তাছাড়াও কন্যাশ্রী আব বিশ্বখ্যাত। আছে রুপশ্রী,যুবশ্রী,সবুজসাথী,খাদ্যসাথী,স্বাস্থ্যসাথী,সামাজিক সুরক্ষা সহ একাধিক প্রকল্পের মাধ্যমে বাংলার মানুষ উপকৃত হচ্ছেন। আর এই সমস্ত প্রকল্পেরমূল কারিগর বাংলা জননেত্রী তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী।ফলে তিনিই আমাদের “বাংলার গর্ব মমতা”।
উল্লেখ্য বাংলার গর্ব মমতা তৃণমূল কংগ্রেসের ৭৫ দিনের একটি নিবিড় কর্মসূচি। ২ মার্চ থেকে ১০ মে পর্যন্ত চলবে। এই কর্মসূচিতে ৭৫ হাজারেরও বেশী সংখ্যক দলীয় নেতাকর্মী ও ১৫ হাজারের বেশী তৃণমূলস্তরের জনবসতিতে যাবেন।পাশাপাশি সমগ্র বাংলা প্রায় আড়াই কোটি মানুষের কাছে পৌঁছাবে এই বার্তা। সাধারণ মানুষের সাথে দলের যোগাযোগ কে পুনরুজ্জীবিত করে তোলাই মূল লক্ষ্য এই কর্মসূচির।