বুধবার, ৬ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

 দিল্লিতে গুড়িয়া গণধর্ষণকাণ্ডে দুই অভিযুক্তকে দোষী সাব্যস্ত করল দিল্লির পকসো আদালত

News Sundarban.com :
জানুয়ারি ১৮, ২০২০
news-image

 দিল্লিতে গুড়িয়া গণধর্ষণকাণ্ডে দুই অভিযুক্তকে দোষী সাব্যস্ত করল দিল্লির পকসো আদালত। আগামী ৩০ জানুয়ারি সাজা ঘোষণা।  মনোজ শাহ ও প্রদীপ কুমারকে দোষী সাব্যস্ত করে আদালতের পর্যবেক্ষণ, শিশুকন্যার উপরে অপরাধ বিরল ও বিরক্তিকর। সমাজের নৈতিকতায় আঘাত লেগেছে।

২০১২ সালে ১৬ ডিসেম্বর নির্ভয়াকাণ্ড নাড়িয়ে দিয়েছিল গোটা দেশকে। তার ঠিক ৬ মাস পরে ৫ মাসের শিশু গুড়িয়াকে গণধর্ষণের অভিযোগ ওঠে পূর্ব দিল্লিতে। শিশুটিকে অপহরণ করা হয়েছিল। তার ২ দিন পর একটি বহুতলের বেসমেন্টে পাওয়া যায় তাকে। তার গোপনাঙ্গে ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছিল মোমবাতি, কাচের টুকরো। গুড়িয়া মারা গিয়েছে ভেবে পালিয়ে গিয়েছিল অভিযুক্তরা।  ৪০ ঘণ্টা পর ১৭ এপ্রিল ওই শিশুকন্যাকে উদ্ধার করা হয়। বিহারের মুজফফরপুর ও দ্বারভাঙা থেকে মনোজ শাহ ও প্রদীপ কুমারকে গ্রেফতার করে দিল্লি পুলিস।

২০১৩ সালের মে মাসে চার্জশিট পেশ করে পুলিশ। ১১ জুলাই চার্জগঠন হয় আদালতে। কিন্তু পকসো আদালতে ৫৭ জনের জবানবন্দি নিতে লেগে গিয়েছে ৫ বছর। গুড়িয়ার বাবার কথায়,”২ বছরের মধ্যে শুনানি শেষ করা উচিত ছিল। তবে সুবিচার পাওয়ায় আমরা খুশি।”

এদিন দোষী সাব্যস্ত করে পকসো আদালতের বিচারক বলেন. ”আমাদের সমাজে বিশেষ উত্সবে নাবালিকাদের দেবী হিসেবে পুজো করা হয়। সে দেশে শিশুকন্যার উপরে চলেছে চরম নির্যাতন ও হিংসা।”