শনিবার, ২১শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

বিক্ষোভে ফের উত্তাল হয়ে উঠেছে হংকং বিমানবন্দর

News Sundarban.com :
সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৯
news-image

বিক্ষোভে ফের উত্তাল হয়ে উঠেছে হংকং। বিক্ষোভকারীরা হংকংয়ের বিমানবন্দরকে লক্ষ্য করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। ছবি: এএফপি
বিক্ষোভে ফের উত্তাল হয়েবিক্ষোভে ফের উত্তাল হয়ে উঠেছে হংকং। বিক্ষোভকারীরা হংকংয়ের বিমানবন্দরকে লক্ষ্য করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, হংকংয়ের শা তিন শহরে বিক্ষোভকারীরা ব্যাপক ভাঙচুর করেছে। এ সময় বিক্ষোভকারীদের ঠেকাতে পুলিশ কাঁদানে গ্যাসের শেল ছোড়ে। এর আগে বিমানবন্দরে যাওয়ার মেট্রোরেল ব্যবস্থাতেও বাধা দেওয়ার চেষ্টা করে বিক্ষোভকারীরা। উঠেছে হংকং। বিক্ষোভকারীদের ঠেকাতে দাঙ্গা পুলিশ হংকংয়ের একটি প্রধান রেলস্টেশনে অবস্থা নিয়েছে। বিক্ষোভকারীরা হংকংয়ের বিমানবন্দরকে টার্গেট করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। এরই মধ্যে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়েছে পুলিশের।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, বিক্ষোভের কারণে যাত্রীদের বিমানবন্দরে পৌঁছাতে বেশ সমস্যা হচ্ছে। এতে করে যাত্রীরা সরাসরি বিমানবন্দরে যেতে পারছেন না। একই সঙ্গে হংকংয়ের চারপাশের বাস সেবাও ব্যাহত হচ্ছে।

এদিকে অভিযোগ উঠেছে, বিক্ষোভকারীরা প্রকাশ্যে চীনের জাতীয় পতাকার মর্যাদাহানি করে। এ ছাড়া বিক্ষোভকারীরা একটি শপিং সেন্টারও লন্ডভন্ড করে।

আসামি প্রত্যর্পণ বিল ঘিরে গত জুন মাসের মাঝামাঝি সময় থেকে উত্তাল হয়ে ওঠে হংকং। বিলটিতে বলা হয়, হংকংয়ে গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের বিচারের জন্য চীন চাইলে নিজ ভূখণ্ডে নিয়ে যেতে পারবে। তবে বিক্ষোভের মুখে বিলটি স্থগিত করা হয়। এরপরও বিক্ষোভ শেষ হয়নি। গণতন্ত্রের জন্য নতুন নতুন দাবিতে বিক্ষোভ চলছে। এ নিয়ে টানা ১৬ সপ্তাহ ধরে চলছে বিক্ষোভ। এই আন্দোলনে এখন পর্যন্ত নয় শতাধিক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

হংকংয়ে চলমান বিক্ষোভের ব্যাপারে চীন বিদেশি শক্তি, বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য ইন্ধন দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে। হংকং আন্দোলনে নাক না গলাতে বিদেশি শক্তিগুলোকে সতর্ক করেছে চীন।

হংকংকে ১৯৯৭ সালে চীনের কাছে হস্তান্তর করে যুক্তরাজ্য। ওই সময় থেকে শহরটিতে ‘এক দেশ, দুই পদ্ধতি’ নীতি চলছে। চীনের স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল হংকংয়ে স্বাধীন বিচারব্যবস্থা রয়েছে।