সোমবার, ২৩শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

তিতলির তান্ডবে বিপর্যস্ত ওড়িশা ও অন্ধ্রপ্রদেশের উপকূলবর্তী এলাকা

News Sundarban.com :
অক্টোবর ১১, ২০১৮
news-image

ঘূর্ণিঝড় তিতলির তান্ডবে বিপর্যস্ত ওড়িশা ও অন্ধ্রপ্রদেশের উপকূলবর্তী এলাকা। শ্রীকাকুলামে ইতিমধ্যেই গাছ পড়ে মৃত্যু হয়েছে দুজনের । প্রবল জলোচ্ছাসে বিপর্যস্ত যোগাযোগ ব্যবস্থা ।তিতলির জেরে অন্ধ্রপ্রদেশ ও ওড়িশায় বিদ্যুৎ ও টেলিফোন পরিষেবা বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। ওড়িশার ৫ উপকূলবর্তী জেলার ৩ লাখের উপর মানুষকে নিরাপদ জায়গায় সরানো হয়েছে। বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী এলাকাবাসীদের উপকূলবর্তী এলাকা থেকে দূরে থাকতে বলেছে। এই অবস্থায় কী পূর্বাভাস দিল হাওয়া অফিস ? হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস অনুযায়ী আগামী ১২ ঘন্টার মধ্যে উত্তর-পশ্চিম কোণ ধরেই নিজের গতিপথ বজায় রাখবে তিতলি নামধারী সাইক্লোন । এরপর পুনরায় উত্তর-পশ্চিমে নিজের গতিপথ পরিবর্তন করে ওড়িশার উপর দিয়ে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের উপকূলে প্রবেশ করতে পারে । তবে হাওয়া অফিস সূত্রের খবর দুপুরের পর থেকে শক্তি হারাতে পারে তিতলি । তবে ব্যাপক ঝঞ্ঝার সম্ভাবনাও রয়েছে বলে জানিয়েছেন হাওয়া অফিসের আধিকারিকরা । আজ সন্ধের মধ্যে ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনাও রয়েছে । আগামিকাল অর্থাৎ ১২ অক্টোবর একটি গভীর নিম্নচাপে পরিণত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে তিতলির ।
তিতলি ঘূর্ণিঝড়ের কারণে ইতিমধ্যেই ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে । কেন্দ্রর তরফ থেকেও পরিস্থিতির উপর নজর রাখা হচ্ছে ও সবরকম সাহায্যের জন্য প্রস্তুত রয়েছে কেন্দ্র, জানিয়েছেন পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান ।
আজ দুপুরে পরিস্থিতি খতিয়ে দেখার জন্য শ্রীকাকুলামের উদ্দেশ্যে যাত্রা করবেন অন্ধ্রের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইড়ু। ওড়িশার পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করবেন ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েক । ইতিমধ্যেই উপকূলবর্তী এলাকা থেকে স্থানীয়দের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে । ওড়িশায় জেলা জেলায় যুদ্ধকালীন তৎপরতায় উদ্ধারকাজ চালিয়ে যাচ্ছে বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী ।