বুধবার, ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ফের বিতর্কের মুখে পড়লেন অভিনেতা বিক্রম চট্টোপাধ্যায়

News Sundarban.com :
জুলাই ২৩, ২০১৮
news-image

অভিনেতা বিক্রম চট্টোপাধ্যায়এর  বিরুদ্ধে আদালতে মিথ্যে তথ্য দেওয়ার অভিযোগ উঠল ৷ পুলিশের তরফে জানা গিয়েছে, অভিনেতা বিক্রম চট্টোপাধ্যায় পাসপোর্ট ফেরত চেয়ে আদালতে আবেদন করেছিলেন ৷ পাসপোর্ট ফেরত পাওয়ার কারণ হিসেবে তিনি সেখানে বলেছিলেন যে, তিনি বিদেশে শ্যুটিং করতে যাবেন ৷

কিন্তু আদালতের কাছে পুলিশের তরফে পাল্টা দাবি করা হয় যে, বিক্রম যে তথ্য আদালতে দিচ্ছেন তা সম্পূর্ণ মিথ্যে ৷ তাঁর বিদেশে কোনও শ্যুটিং নেই ৷ এরপরই বিক্রমের পাসপোর্ট আটকে রাখল আদালত ৷ উল্লেখ্য, গত বছরের ২৯ এপ্রিল রাসবিহারী মোড়ের কাছে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে বিক্রমের গাড়ি। মৃত্যু হয় বিক্রমের সহযাত্রী সনিকার। জখম হন বিক্রম। ওই ঘটনায় প্রথমে গাফিলতির জেরে মৃত্যু, বেপরোয়া গাড়ি চালানো ও সম্পত্তি নষ্টের ধারায় বিক্রমের বিরুদ্ধে মামলা রুজু হয়। দুর্ঘটনার দিন শহরের নাইট ক্লাব থেকে গাড়ি চালিয়ে ফেরার পথে কসবায় কী কথা হয়েছিল বিক্রমের সঙ্গে সনিকার, অভিযুক্ত অভিনেতার কাছে জানতে চান তদন্তকারীরা৷ সনিকাকে বাড়ি ছাড়বে বলে কেনই বা বিক্রমের ফ্ল্যাটের নিচে ৩৫ মিনিট দাঁড়িয়ে ছিল গাড়ি? তা জানতেই দফায় দফায় বিক্রমকে জেরা করে পুলিশ৷ প্রাথমিক তদন্তে পরিষ্কার, দুর্ঘটনার সময় বিক্রম সিট বেল্ট পড়ে থাকলেও, বেল্ট লাগানো ছিল না সনিকা সিং চৌহানের৷

সনিকার বন্ধুরা দাবি করেন, বিক্রম যদি নেশা না করে থাকতেন, তবে কেন তিনি সনিকাকে সিট বেল্ট বাধতে জোর করলেন না? সিট বেল্ট না থাকাতেই দুর্ঘটনার সময় সনিকা ছিটকে গিয়ে পড়েন গাড়ির ড্যাশবোর্ডে৷ তাঁর মাথার পিছনে, কানে গুরুতর আঘাত লাগে৷ গাড়ির ব্ল্যাক বক্সের তথ্য অনুযায়ী ঘটনার দিন ১০০ কিলোমিটারের বেশি বেগে গাড়ি চালাচ্ছিলেন বিক্রম৷ এই মামলার তদন্তে নেমে চারটি ধারায় অভিনেতা বিক্রম চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করে পুলিশ৷ ২৭৯ ধারায় জোরে গাড়ি চালানোর জন্য, ৩৩৮ ধারায় অন্যের ব্যক্তিগত ক্ষতি করার জন্য, ৪২৭ ধারায় অন্যের সম্পত্তি নষ্ট করার জন্য ও ৩০৪ এ ধারায় চালকের গাফিলতিতে মৃত্যুর অভিযোগও দায়ের করা হয়েছিল ৷ পরে জামিনে মুক্তি পান তিনি ৷ কিন্তু তাঁর পাসপোর্টটি এতদিন পুলিশের কাছেই রয়েছে ৷ আর পাসপোর্ট ফেরত পেতে গিয়ে ফের বিতর্কের মুখে পড়লেন অভিনেতা ৷