বুধবার, ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বকেয়া ডিএ ঘোষণার পরেও মিলছে না মামলা থেকে রেহাই

News Sundarban.com :
জুলাই ১৮, ২০১৮
news-image

সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ১৫ শতাংশ হারে ডিএ বা মহার্ঘ ভাতা দেওয়ার ঘোষণার পর কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের মধ্যে সেই বেতন ফারাক কমে ৩৯ শতাংশে এসে দাঁড়ায় ৷কিন্তু গত ৭ মার্চ আরও দুই শতাংশ হারে কেন্দ্রীয় কর্মচারীদের মহার্ঘ ভাতা বৃদ্ধির কথা ঘোষণা করে কেন্দ্র ৷ ফের ফারাক বেড়ে দাঁড়ায় ৪৯ শতাংশে ৷
ডিএ মামলায় ফের হাইকোর্টের তোপের মুখে রাজ্য সরকার। মহার্ঘভাতা কর্মীদের অধিকার বলেই জানিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট ৷ মঙ্গলবার মামলার শুনানি চলাকালীনই পর্যবেক্ষণে রাজ্য সরকারি কর্মীদের দাবিকেই মান্যতা দেন বিচারপতিরা ৷ এতে স্যাটের রায়ের বিরুদ্ধে প্রাথমিক সাফল্য পেলেন রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা ৷ মামলার পরবর্তী শুনানি বৃহস্পতিবার ৷
এর আগে শুনানিতে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের সঙ্গে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের ডিএ-এর বৈষম্য নিয়ে এদিন প্রশ্ন তুলেছিলেন হাইকোর্টের বিচারপতি। তার মতে, ‘বৈষম্য করা মানে মৌলিক অধিকার খর্ব।’ সেই প্রশ্নের উত্তরে হলফনামা জমা করে রাজ্য সরকার জানায় কেন্দ্রের হারে রাজ্যের পক্ষে ডিএ দেওয়া সম্ভবপর নয় ৷
সরকারি কর্মীদের কেন ডিএ অর্থাৎ মহার্ঘভাতা পাওয়া উচিত তার স্বপক্ষে একাধিক যুক্তি আদালতের সামনে রাখেন সরকারি কর্মচারী কোঅর্ডিনেশন কমিটির পক্ষের আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য। স্যাটের রায়কে দুর্ভাগ্যজনক বলে তিনি ব্যাখা দেন, পঞ্চম বেতন কমিশনের সুপারিশ মেনে সংবিধানের ৩০৯ ধারা অনুযায়ী, ২০০৯ সালে রিভিশন অফ পে অ্যান্ড অ্যালাউন্স আইন তৈরি করে রাজ্য সরকার। সেখানে ডিএ দেওয়ার কথা বলা হলেও আদালতে রাজ্য জানাচ্ছে কর্মচারীদের ডিএ পাওয়ার কোনও অধিকার নেই। তাদের ডিএ রাজ্যের ইচ্ছার অধীন ৷
রাজ্য সরকারী কর্মচারীদের ডিএ নিয়ে আদালতে জোর সওয়াল করেন আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য ৷ তিনি বলেন, মহার্ঘ ভাতায় সরকারি কর্মচারীদের সাংবিধানিক অধিকার রয়েছে। কারণ, দিল্লি এবং চেন্নাইতে কর্মরত রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা যে হারে ডিএ পাচ্ছে, রাজ্যে ফিরে এলেই কি ডিএ’র হার কমে যাবে? এই প্রশ্নের উত্তরে কোনও জবাব দেননি রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল কিশোর দত্ত ৷
সমস্ত বক্তব্য শোনার পর ডিভিশন বেঞ্চ রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের দাবিতেই সিলমোহর দেন ৷ এই রাজ্যে কর্মরত কর্মচারীদের ডিএ-এর ক্ষেত্রে বৈষম্য রয়েছে ৷
প্রায় এক বছরের বেশি সময় ধরে চলছে এই মামলা৷ জানা গিয়েছে, রাজ্য সরকারি কর্মীদের বকেয়া ডে.এ মেটানোর দাবিতে কনফেডারেশন অব স্টেট গভর্নমেন্ট এমপ্লয়িজ ফেডারেশনের সম্পাদক মলয় মুখোপাধ্যায় গত নভেম্বরে স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনালের মামলা দায়ের করলে তাদের তরফে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়, ডিএ দেওয়া সরকারের ইচ্ছার উপর নির্ভর করে ৷ ট্রাইব্যুনালের এই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেন মলয় মুখোপাধ্যায়৷

‘ডিএ কর্মীদের অধিকার নয়’, স্যাটের এই নির্দেশে ক্ষুব্ধ আদালত ৷ অ্যাডভোকেট জেনারেলর আপত্তি উড়িয়ে মামলা গ্রহণ করা হয় ৷ রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের ডিএ মামলা নিয়ে স্যাট-এর নির্দেশকে তুলোধনা করে ডিভিশন বেঞ্চ ৷