বুধবার, ৬ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

দিল্লি-মেরঠ এক্সপ্রেসওয়ে ১৪ লেনের রাস্তার উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

News Sundarban.com :
মে ২৭, ২০১৮
news-image

আজ দিল্লি-মেরঠ এক্সপ্রেসওয়ে উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ৷ দিল্লি-মেরঠ মহাসড়ক দেশের সৱচেয়ে ৱ্যস্ত রাস্তাগুলির মধ্যে অন্যতম ৷ সেটিকে ১৪ লেনের রাস্তা হিসেৱে গড়ে তোলা হয়েছে ৷ এত চওড়া রাস্তা ভারতে এখন একটিও নেই ৷ওই রাস্তাটি খুৱ ৱেশি গাড়ি চলাচল করায় দিল্লির সঙ্গে উত্তর ভারতের ৱিস্তীর্ণ অংশের সংযোগ রক্ষাকারী এই রাস্তায় ট্র্যাফিক জ্যাম নিত্যদিনের ঘটনা ৷ তাই সাড়ে সাত হাজার কোটি টাকা ৱ্যয়ে ১৪ লেনের রাস্তা হিসেৱে গড়ে তোলা হচ্ছে এটিকে ৷ কেন্দ্রীয় সড়ক পরিৱহন মন্ত্রী নীতিন গডকড়ি জানান, ৩১টি ট্র্যাফিক সিগন্যাল পয়েন্ট তুলে নিয়ে এই মহাসড়কে যান চলাচলের গতি ৱাড়ানো হচ্ছে ৷ এখন দিল্লি থেকে মেরঠ পৌঁছতে আড়াই ঘণ্টা লাগে ৷ ১৪ লেনের রাস্তার তৈরি হওয়ার ফলে দিল্লি থেকে মেরঠ মাত্র ৪০ মিনিটেই পৌঁছনো যাৱে ৷৯৬ কিলোমিটার দীর্ঘ দিল্লি – মেরঠ হাইওয়ে দেশের প্রথম ১৪ লেনের সড়ক। এই সড়কে বিদ্যুত্ সাশ্রয়ের জন্য রয়েছে বিশেষ ব্যবস্থা। তাই গ্রিন হাইওয়ে নাম দেওয়া হয়েছে এই সড়কের। মোট ৮৪১ কোটি টাকা খরচে তৈরি হয়েছে এই সড়ক। যমুনা সেতুর ওপর এই সড়কের দু’ধারে বসানো হয়েছে সোলার প্যানেল। সেতুর ওপর থাকবে দেওয়াল বাগিচা ও জল সাশ্রয়কারী সেচ। নিজামুদ্দিন থেকে গাজিয়াবাদের মধ্যে ১২ লেনে চলাচল করবে গাড়ি। এর মধ্যে ৮টি লেন ব্যবহৃত হবে হাইওয়ে হিসাবে। এক্সপ্রেসওয়ের দু’পাশে ২.৫ মিটার চওড়া সাইকেল চালানোর সড়ক ও ১.৫ মিটার চওড়া ফুটপাথ রয়েছে। ৫০০ দিনে শেষ হয়েছে এই প্রকল্পের কাজ। এই সড়ক চালু হওয়ায় দিল্লি ও পশ্চিম উত্তর প্রদেশের মধ্যে যোগাযোগ সুগম হবে। গোটা প্রকল্প রূপায়িত হলে মোট ৩১টি ট্রাফিক সিগনালের বাধা থেকে মুক্তি পাবে সাধারণ মানুষ।