মঙ্গলবার, ৯ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

গোসাবায় তৃণমূল প্রার্থীকে অপহরণ করে মারধোর

News Sundarban.com :
মে ৩, ২০১৮
news-image

দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলার গোসাবায় তৃণমূল প্রার্থীকে অপহরণ ও মারধোরের অভিযোগ উঠলো নির্দল প্রার্থীর বিরুদ্ধে।গতকাল বুধবার নির্বাচন কমিশনে অভিযোগে জানান গোসাবা থানার শম্ভুনগর গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূল প্রার্থী বিশ্বজিত দাস এবং মানিক দাস।আশ্চর্যের বিষয় গোটা রাজ্যে তৃণমূলের বিরুদ্ধে বিরোধী দলের প্রার্থীদের মনোনয়ন দাখিল করতে না দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। বিষয়টি গড়িয়েছে আদালতেও।বিভিন্ন জায়গায় অস্ত্রহাতে বিরোধীদের হুমকি দেওয়ার অভিযোগও উঠেছে একাধিকবার। এবার বিপরীত ঘটনা ঘটলো দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার গোসাবায়।উল্লেখ্য গোসাবা থানার শম্ভুনগর গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূল প্রার্থী বিশ্বজিত দাস এবং মানিক দাসকে আরএসপি ও আদিতৃণমূল সমর্থিত নির্দল প্রার্থীরা তুলে নিয়ে গিয়ে ব্যাপক মারধোর করে বলে অভিযোগ।পরে পুলিশ গিয়ে তাঁদের উদ্ধার করে। রাজ্য নির্বাচন কমিশনের কাছে এই মর্মে অভিযোগ জানালেন তাঁরা। পাশাপাশি পুলিশের বিরুদ্ধে নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগও এনেছেন।গত ২৮ এপ্রিল শনিবার গোসাবার বেলতলি বাজার এলাকা থেকে মানিক দাস এবং বিশ্বজিৎ দাস কে তুলে নিয়ে যায় নির্দল প্রার্থী বরুণ প্রামাণিক(চিত্ত) ও পরিতোষ হালদারের দলবল।তাদের আগ্নেয়াস্ত্র দেখিয়ে আটকে রাখা হয় বরুণের বাড়িতে। সেখানে তাঁদের উপর যথেষ্ট অত্যাচার চালানো হয় বলে অভিযোগ।স্থানীয় বিধায়ক জয়ন্ত নস্কর বলেন “বিধানসভা ভোটের একদা আরএসপির গুন্ডা এবং বর্তমান বিজেপি সমর্থিত চিত্ত প্রামানিক ও গরুপাচারকারীদের সাথে যুক্ত পরিতোষ হালদারের গুন্ডা বাহিনী বেলতলি বাজার থেকে সশস্ত্র অবস্থায় ওদের দুজনকে অপহরণ করে বরুণ প্রামাণিকের বাড়ী নিয়ে গিয়ে চার দিন ধরে আটকে রাখে ও অকথ্য অত্যাচার চালায় । এমন কি পিপাসা মেটানোর জন্য জল চাইলে প্রসাব করে দেওয়ার কথা বলা হয়।ওদের কে প্রাণে মারার হুমকি দিয়ে স্বেচ্ছায় এসেছে বলে মুচলেকা ও লিখিয়ে নেয়।