বৃহস্পতিবার, ৭ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টেস্টে অস্ট্রেলিয়া দলের বল বিকৃতির ঘটনা নিয়ে ভারতীয় দলের প্রাক্তন অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় তীব্র সমালোচনা করলেন অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারদের

News Sundarban.com :
মার্চ ২৭, ২০১৮
news-image

দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টেস্টে অস্ট্রেলিয়া দলের বল বিকৃতির ঘটনা নিয়ে ভারতীয় দলের প্রাক্তন অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় তীব্র সমালোচনা করলেন অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারদের, তিনি বলেন যে কোনও মূল্যে জয় চাই, এই মানসিকতার অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারদের। অস্ট্রেলিয়ার এই মানসিকতা একেবারেই ঠিক নয়। তিনি বলেছেন, স্টিভ স্মিথ ও তাঁর দলের খেলোয়াড়দের এই কাজ ‘চূড়ান্ত বোকামি’।তিনি আর ও বলেছেন, ‘আসলে আমার মনে হয়, স্মিথের মাথা কাজ করছিল না (ব্রেন ফেড)।আমার মনে হয়, ভারতে যখন গতবার ও ব্রেন ফেড হওয়ার কথা বলেছিল, তা ছিল কথার কথা। কিন্তু এই ঘটনার পর আমার মনে হয়, সত্যিই ওর ব্রেন ফেড হয়ে গিয়েছিল’। স্মিথের এই কাজ করার কোনও প্রয়োজন ছিল না। স্মিথ বা ডেভিড ওয়ার্নার বা ব্যানক্রফ্ট যে কাজ করেছে তা চূড়ান্ত বোকামি ছাড়া আর কিছু নয়।
নিউল্যান্ডসে বল বিকৃতির ঘটনায় আইসিসি স্মিথকে একটি টেস্টের জন্য নিষিদ্ধ করেছে। যাকে হলুদ রঙের জিনিস দিয়ে বল বিকৃত করতে দেখা গিয়েছিল, সেই ব্যানক্রফ্টের ম্যাচ ফির ৭৫ শতাংশ জরিমানা করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, ভারত সফরে বেঙ্গালুরু টেস্টে ডিআরএস নিতে গিয়ে স্মিথ ড্রেসিংরুমের কাছ থেকে পরামর্শ চেয়েছিলেন স্মিথ, যা নিয়মবিরুদ্ধ। পরে সাফাই দিতে গিয়ে স্মিথ বলেছিলেন, তাঁর ব্রেন ফেড হয়ে গিয়েছিল।
১৯৮১-তে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্টের সময় আন্ডারআর্ম বোলিং করেছিল। এভাবেই অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটটা খেলে।
সৌরভ বলেছেন, ‘২০০৮-র ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার সিরিজে একটা দলই ক্রিকেটের স্পিরিট মেনে খেলেছিল। আমি ৬০ রানে ব্যাট করছিলাম। রিকি পন্টিং বল মাটিতে পড়ার পর ক্যাচ ধরেছিল। আমি আউট হওয়ার পর ম্যাচের রঙই বদলে গিয়েছিল’।
হরভজন সিংহ স্মিথ ও ব্যানক্রফ্টের আরও কঠোর শাস্তি হওয়া উচিত ছিল বলে মন্তব্য করেছেন। তিনি বলেছেন, ২০০৮-এর সিরিজে মাঙ্কিগেট কাণ্ডে কোনও যথার্থ তদন্ত ছাড়াই আইসিসি তাঁকে তিনটি ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ করেছিল। আর এখন যাঁকে বল বিকৃত করতে দেখা গেল তাঁর মাত্র ৭৫ শতাংশ জরিমানা করেই রেহাই দেওয়া হয়েছে।