বুধবার, ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

নদীয়া ও মুর্শিদাবাদে বিস্তীর্ণ এলাকায় নষ্ট হচ্ছে গম, সীমান্তে, জেলাসফরে গেলেন কর্তারা

News Sundarban.com :
নভেম্বর ৩, ২০১৭
news-image

নদীয়া ও মুর্শিদাবাদে বিস্তীর্ণ এলাকায় চাষ হওয়া গমে রোগ ধরা পড়েছে। রোগের ফলে গম ‘ধুলো’র মতো হয়ে যাচ্ছে বলে কৃষি দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে। পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে বৃহস্পতিবার ওই দুই জেলা পরিদর্শনে গেলেন কৃষিমন্ত্রী আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়। বাংলাদেশ সীমান্ত থেকে ৫ কিমির মধ্যে গম চাষ নিষিদ্ধ করে দেওয়া হয়েছে। চোরাপথে বাংলাদেশ থেকে যাতে গমের বিজ না এ দেশে ঢুকতে না পারে তার জন্যও সজাগ করে দেওয়া হয়েছে বিএসএফ-কে।
এ দিনের সমীক্ষা সফরে মন্ত্রী আশিসবাবুর সঙ্গে আছেন মুখ্যমন্ত্রীর কৃষি উপদেষ্টা প্রদীপ মজুমদার এবং কৃষিসচিব সঞ্জীব চোপড়া। পরে বহরমপুরে কৃষি দফতরের কর্তাব্যক্তি এবং দুই জেলার প্রশাসনের সঙ্গে বৈঠকে বসেন কৃষিমন্ত্রী। তিনি বলেন, “বাংলাদেশ থেকে হাওয়া এসে গমের ক্ষতি করে দিচ্ছে। রোগটির নাম ‘হুইট ব্লাস্ট’। কী করে এই রোগ নিয়ন্ত্রণ করা যায়, তা নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। বিশেষজ্ঞদের মতামত নেব। আমরা বিকল্প চাষের জন্য বলব কৃষকদের। তার জন্য বিনা পয়সায় বীজ, উপকরণ ও যন্ত্রপাতি দেওয়া হবে।“ বাংলাদেশের সীমান্ত এলাকায় গম চাষ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বলে কৃষি দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে।
‘হুইট ব্লাস্ট’ রোগে রাজ্যের গম চাষ আক্রান্ত হওয়ায় বাংলাদেশ সীমান্ত সংলগ্ন ১ লক্ষ ৯১ হাজার হেক্টর জমিতে গম চাষ নিষিদ্ধ করে দিয়েছে রাজ্য কৃষি দফতর। লাতিন আমেরিকার মারাত্মক রোগ ঢুকে গেছে রাজ্যে, তাই চিন্তিত এই দফতর।