শুক্রবার, ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শনে যাওয়ার পথে বাংলাদেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রীর গাড়িবহরে হামলা

News Sundarban.com :
অক্টোবর ২৯, ২০১৭
news-image

এম এ আহাদ শাহীন:

বাংলাদেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া কক্সবাজারে রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবির পরিদর্শনে যাওয়ার পথে ফেনীতে হামলার কবলে পড়েছে তাঁর গাড়িবহর।

এসময় সফরের সংবাদ সংগ্রহে দায়িত্বরত দুই সাংবাদিক আহত হয়েছেন। ভাঙচুর করা হয়েছে বাংলা ট্রিবিউনের সাংবাদিককে বহনকারী একটি গাড়িসহ বৈশাখী টিভি ও ডিবিসি টিভির মোট তিনটি গাড়ি।

এছাড়াও জেলার লালপুলে বিএনপি নেত্রীর গাড়িবহরে থাকা নেতা-কর্মীদের জন্য খাবারের ব্যবস্থা করা একটি হোটেলেও ছাত্রলীগ ও যুবলীগের কর্মীরা হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ফেনীতে সাংবাদিকদের ওপরে হামলার সর্বশেষ ঘটনাটি ঘটে চট্টগ্রামের মিরেরসরাই উপজেলার বারইয়ারহাট এলাকায় বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে।

এসময় বাংলা ট্রিবিউনের সিনিয়র রিপোর্টার সালমান তারেক শাকিলসহ আরও কয়েকটি মিডিয়ার কয়েকজন সাংবাদিককে বহনকারী একটি গাড়ি খাবার গ্রহণের জন্য বারিয়ারহাট এলাকার একটি রেস্তোরাঁয় দাঁড়ানো মাত্র কয়েকজন তরুণ এসে কোনও কথা না বলেই গাড়িটির সামনের ও পাশের কাচ ভেঙে ফেলে। সাংবাদিক পরিচয় দেওয়ার পরেও তাদের রেহাই দেওয়া হয়নি। খাবার খেতে না দিয়েই তাদের তাড়িয়ে দেওয়া হয়। ওই গাড়িতে নিউ এজের সাংবাদিক রাশেদ আহমেদ মিতুল ও বাংলাদেশ প্রতিদিনের শফিউল আলম দোলনও ছিলেন।

এর আগে শনিবার বিকাল পৌনে ৫টার দিকে বিএনপি নেত্রীর গাড়িবহর ফতেহপুর এলাকা অতিক্রম করার সময় সাংবাদিকদের বহনকারী গাড়িতে প্রথম হামলার ঘটনাটি ঘটে । সেখানে রাস্তার ধারে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা দুষ্কৃতকারীরা খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে ঢিল ছুড়লে সেটি এসে লাগে সফরের সংবাদ সংগ্রহের দায়িত্বে থাকা বৈশাখী টেলিভিশনের গাড়িতে। এতে গাড়িটির গ্লাস ভেঙে যায় এবং এর ভাঙা কাচ লেগে হাত কেটে যায় বৈশাখীর সিনিয়র রিপোর্টার গোলাম মোরশেদ বিজুর। একই গাড়িতে থাকা ৭১ টিভির বিশেষ প্রতিনিধি শফিক আহমেদও এসময় আহত হন। এসময় ৭১ টিভির ক্যামেরাও ঢিলের আঘাতে ভেঙে যায়। একই সময় দুর্বৃত্তদের হামলায় ডিবিসি টেলিভিশনের একটি গাড়ির কাচও ভেঙে যায়।

আহত সাংবাদিক গোলাম মোরশেদ জানান, ফেনীর শহরে ঢোকার আগে মহীপালের ফতেহপুর নামক স্থানে দুষ্কৃতকারীরা ঢিল ছুড়ে তাদের গাড়ির কাচ ভেঙে ফেলে। ওই কাচ লেগে তার হাত কেটে গিয়েছে। এসময় তার সঙ্গে থাকা ৭১ টিভির বিশেষ প্রতিনিধি শফিক আহমেদও আহত হন।

এদিকে, জেলার লালপুলে বিএনপি নেত্রীর গাড়িবহরের সঙ্গে থাকা নেতাকর্মীদের জন্য আয়োজন করা খাবার ছাত্রলীগ ও যুবলীগের কর্মীরা হামলা চালিয়ে নষ্ট করেছে বলে দাবি করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইংয়ের কর্মকর্তা শায়রুল কবীর খান।

তিনি বলেন, লালপুল এলাকায় আমাদের গাড়িবহরে থাকা নেতা-কর্মী ও সাংবাদিকদের জন্য একটি রেস্টুরেন্টে খাবারের আয়োজন করেছিল স্থানীয় বিএনপি। সেখানে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের কর্মীরা হামলা চালিয়ে খাবারের আয়োজন নষ্ট করেছে। কোনও গাড়িকে সেখানে দাঁড়াতেও দেয়নি।

তবে ঘটনাস্থল সেভেন স্টার হোটেলের মালিক জাফর আহমদ পাটোয়ারী দাবি করেছেন, তার হোটেলে কোনও হামলার ঘটনা ঘটেনি।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে ফেনী সদর থানার ওসি রাশেদ খান চৌধুরী জানান, বিএনপি নেত্রীর গাড়িবহরে হামলার কোনও তথ্য তাদের জানা নেই।

তবে খালেদা জিয়ার গাড়িতে হামলার কোনও ঘটনা ঘটেনি। তিনি বিশেষ নিরাপত্তায় বিকাল ৫ টা ৫ মিনিটে ফেনী সার্কিট হাউসে পৌঁছান। সেখানে দলের নির্বাচিত ১৫ জন নেতার সঙ্গে বিশেষ বৈঠক শেষে খাবার খেয়ে বিশ্রাম নেন বিএনপি চেয়ারপারসন। পরে তিনি গাড়িবহরসহ কক্সবাজারের উদ্দেশে ফেনী ত্যাগ করেন।