শুক্রবার, ২রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

‘ফ্রাইড-পটেটো’ মৃত্যু ঝুঁকি বাড়ায়

News Sundarban.com :
সেপ্টেম্বর ৮, ২০১৭
news-image

খাবার রান্নার প্রক্রিয়া স্বাস্থ্যের উপর গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব রাখে। যারা সপ্তাহে দুই বা তার বেশি সময় ‘ফ্রাইড-পটেটো’ খান তাদের মৃত্যু ঝুঁকি অন্যদের (যারা ‘ফ্রাইড-পটেটো’ এড়িয়ে চলেন) থেকে প্রায় দ্বিগুণ। আমেরিকান জার্নাল অব ক্লিনিক্যাল নিউট্রিশন-এ প্রকাশিত সাম্প্রতিক এক গবেষণায় এই তথ্য উঠে এসেছে।

তবে, ফ্রাই করা নয়, এমন আলু খাওয়ার সঙ্গে মৃত্যু ঝুঁকির কোন সম্পর্ক পাওয়া যায়নি। ইতালির পাদোয়াতে ন্যাশনাল রিসার্চ কাউন্সিলের গবেষক ও বিজ্ঞানী ডা. নিকোলা ভেরোনিস বলেন, খাদ্য হিসাবে ‘ফ্রাইড পটেটোর’ চাহিদা বিশ্বব্যাপী বৃদ্ধি পাচ্ছে। এটি উদ্বেগজনক।

ন্যাশনাল পটেটো কাউন্সিলের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৪ সালে আমেরিকায় জনপ্রতি ১১২ দশমিক ১ পাউন্ড আলু খাদ্য হিসাবে গ্রহণ করে। এরমধ্যে মাত্র ৩৩ দশমিক ৫ পাউন্ড ছিল রান্না করা। আর বাকি ৭৮ দশমিক ৫ পাউন্ড ছিল ফ্রাইড। ‘ইউএস ডিপার্টমেন্ট অব এগ্রিকালচার’ থেকে প্রকাশিত তথ্য বলছে, এসব ফ্রাইড পটেটোর মধ্যে সবই মূলত ‘ফ্রান্স ফ্রাই’।

ভেরোনিস ও তার সহকর্মীরা আট বছর ধরে ৪৫ থেকে ৭৮ বছর বয়সী চার হাজার চারশ’ ৪০ জনের ওপর অস্টিও আর্থারাইটিস নিয়ে গবেষণা করেন। তারা এই গবেষণায় অস্টিও আর্থারাইটিসের পাশাপাশি মৃত্যুর কারণ হিসাবে ‘ফ্রাইড পটেটো’ নিয়েও কাজ করেন।

গবেষক ও বিজ্ঞানী ভেরোনিস বলেন, ‘আমাদের মধ্যে বেশিরভাগই মনে করেন যে, ফ্রাই পটেটো স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। তবে এখন পর্যন্ত এ বিষয় নিয়ে খুবই সীমিত বৈজ্ঞানিক তথ্য আমাদের হাতে রয়েছে।’ সূত্র: সিএনএন