শুক্রবার, ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

পৃথিবীর সব থেকে লম্বা পায়ে হাঁটা ঝুলন্ত সাঁকো

News Sundarban.com :
সেপ্টেম্বর ১, ২০১৭
news-image

 

গত বছরের সেপ্টেম্বরে চীনের পর্যটন কেন্দ্র হেনান এবং হুনান প্রদেশে খুলে দেওয়া হয়েছিল বিশ্বের সবচেয়ে আকর্ষণীয় ঝুলন্ত সেতু। পায়ের নিচে স্বচ্ছ কাচের তৈরি ৩০০ মিটার দীর্ঘ এই সেতুটি ছিল ১৮০ মিটার উঁচুতে। পর্যটকদের জন্য খুলে দেওয়ার মাত্র ১৩ দিন পরই অবশ্য কর্তৃপক্ষ বন্ধ করে দেয় কাঁচের সেতুটি।

চীনের কাঁচের সেতুটির পরে এবার আলোচনায় উঠে এসেছে সুইজারল্যান্ডের ৫০০ মিটার দীর্ঘ সেতুটি। সুইজারল্যান্ডের জেরমাট শহরের সেতুটি ইতিমধ্যে পর্যটকদের মধ্যে সাড়া ফেলে দিয়েছে। তবে এটি পায়ে হেঁটে চলার জন্যই সীমাবদ্ধ থাকবে। এর উপর দাঁড়িয়ে চারপাশের নয়নাভিরাম প্রাকৃতিক দৃশ্য উপভোগ করার জন্য সাঁকোটি দারুণ একটি জায়গা। এটি নিঃসন্দেহে জেরমট পর্যটনকে সমৃদ্ধ করবে।

মূলত সাঁকো হিসেবেই কাজ করবে বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু এই ঝুলন্ত সেতুটি। গ্রাবেনগোফের এই সংকীর্ণ উপত্যকার ৮৫ মিটার উপরে ঝুলছে এই সাঁকোটি। এর আগেও জেরমাটে একটি ঝুলন্ত সেতু ছিল। তবে সেটি উপর থেকে ছিটকে পড়া পাথরে ধ্বংস হয়েছিল। জেরমাটের নতুন সেতুটি যেসব রজ্জু দিয়ে বানানো হয়েছে তার ওজন প্রায় আট টন।

লোকজনের চলার সময় যাতে এটি দুলে উঠতে না পারে সেভাবেই এটিকে তৈরি করা হয়েছে। কর্তৃপক্ষ মনে করছেন, উপর থেকে মাটারহর্ন, ওয়েসিহর্ন এবং বার্নেস আল্পসের সৌন্দর্য উপভোগ করার জন্য পর্যটকদের জন্য নতুন সম্ভাবনা দুয়ার উন্মোচন করেছে। জারমেট এবং গ্রাসেনের মধ্যে যাতায়াতের জন্য আগে যেখানে তিন থেকে চার ঘণ্টা লাগতো সেখানে এই সাঁকো ব্যবহার করে মাত্র ১০ মিনিটেই সেই দূরত্ব ঘোচানো সম্ভব হয়েছে। তবে যাদের উচ্চতা ভীতি রয়েছে তাদের এই সাঁকোতে চড়ার জন্য সাবধান করা হয়েচে।

এর আগে সবচেয়ে দীর্ঘ ঝুলন্ত সেতুটি ছিল অস্ট্রিয়ায়। মাটি থেকে ১১০ মিটার উপরের সেই সেতুটি ছিলো ৪০৫ মিটার লম্বা।