মঙ্গলবার, ৯ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

দীর্ঘদিন বন্ধ ফ্রেজারগঞ্জ মৎস্য বন্দরের সরকারি বরফ কল

News Sundarban.com :
নভেম্বর ৪, ২০২৩
news-image

নিজস্ব প্রতিনিধি, নামখানা: মৎস্যজীবীদের সুবিদার্থে সরকারিভাবে একটি বরফ কল তৈরি করা হয়েছিল দক্ষিণ ২৪ পরগনার ফ্রেজারগঞ্জ মৎস্য বন্দরে। লক্ষ লক্ষ টাকা ব্যয় করে মৎস্য দপ্তর তরফে বরফ কলটি তৈরি করা হয়। মৎস্যজীবীদের জন্য তৈরি হওয়া গুরুত্বপূর্ণ বরফ কল পাঁচ থেকে ছয় বছর ধরে বন্ধ হয়ে পড়ে রয়েছে। কি কারনে বন্ধ হয়ে রয়েছে? তার উত্তর কারোর কাছে নেই। গত পাঁচ থেকে ছয় বছর আগে নামখানা ব্লকের ফ্রেজারগঞ্জের মৎস্য বন্দরে মৎস্যজীবীদের সুবিদার্থে একটি বড় ধরনের বরফ কল তৈরি করা হয়েছিল। অভিযোগ বরফ কলটি তৈরির পরে চালু ও হয়ে ছিল, কিন্তু কয়েক দিন বরফ তৈরি করার পরে বরফ কলটির ছাদ ভেঙে পড়ে তার পর থেকে প্রায় কেটে গিয়েছে পাঁচ বছর সেই অবস্থায় পড়ে রয়েছে বরফ কলটি।

প্রতিদিন প্রায় ১ হাজার বরফ তৈরি করার মত পরিকাঠামো যুক্ত বরফ কলটি তৈরি করে ছিল মৎস্য দপ্তর। এতদিন ধরে কেন বন্ধ হয়ে পড়ে রয়েছে? তার উত্তর প্রশাসনের কারোর কাছেই নেই। মৎস্যজীবীদের অভিযোগ এই মুহূর্তে মৎস্য বন্দরে একটি মাত্র ছোটো বরফ কল রয়েছে যখন প্রচুর পরিমাণে মাছ আসে সেই সময় বরফের সংকট দেখা দেয়। পর্যাপ্ত বরফের অভাবে মাছও অনেক সময় নষ্ট হয়ে যায়।

এই বিষয়ে ওয়েস্ট বেঙ্গল ইউনাইটেড ফিসারম্যান অ্যাসোসিয়েশনের জয়েন্ট সেক্রেটারি বিজন মাইতি জানান “পাঁচ থেকে ছয় বছর আগে মৎস্য দপ্তর এই বরফ কলটি তৈরি করে । তার কারণ ফ্রেজারগঞ্জ মৎস্য বন্দরের উপরে নির্ভর করে কাকদ্বীপ, ডায়মন্ড হারবার, নৈনান, হাওড়া সহ বেশি কিছু জায়গার বহু মৎস্যজীবীরা। বরফ কলটি তৈরি করার কিছুদিন পর বরফ কলটির ছাদ ভেঙে পড়ে। তারপর থেকে পড়ে রয়েছে বরফ কলটি। বিভিন্ন জায়গায় জানিয়েও কোন কাজ হয়নি। শুধুই মিলেছে প্রতিশ্রুতি।,

যদিও এই বিষয়ে দক্ষিন ২৪ পরগনা জেলা পরিষদের সহকারি সভাধিপতি শ্রীমন্ত কুমার মালি বলেন খবরটি সঠিক, সেই সময় মৎস্য মন্ত্রী ছিলেন চন্দ্রনাথ সিনহা। তার সময় এই বরফ কলটি তৈরি হয়েছিল। তার পর মৎস্য মন্ত্রী হন অখিল গিরি, তাকে জানানো হয়েছিল তিনি প্রতিশ্রুতিও দিয়েছিলেন। পরবর্তীকালে বিপ্লব রায়চৌধুরী আসেন দায়িত্বে তবে তার কাছে যাওয়া হয়নি।খুব তাড়াতাড়ি বরফ কলটি যাতে চালু করা যায় তার ব্যাবস্থা করবো।

আরও দেখুন