শনিবার, ৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

পরিবেশ রক্ষা ও বাজ পড়া রুখতে তাল বীজ রোপণ গ্রামের বধুদের

News Sundarban.com :
আগস্ট ৩১, ২০২৩
news-image

বিশ্লেষণ মজুমদার,বাসন্তী : বিশ্ব উষ্ণায়ণ থেকে পরিত্রাণ পেতে এবং পরিবেশ রক্ষা ও বাজ পড়া রুখতে তাল বীজ রোপণ করলেন গ্রামের বধুরা। সাম্প্রতিক ‘আম্ফান’ ‘বুলবুল’ ‘ইয়াস’ ঝড় থেকে শিক্ষা নিয়ে তাল গাছ লাগানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার বাসন্তী ব্লকের আমঝাড়া পঞ্চায়েতের শিকারিপাড়া এলাকার গৃহবধুরা।

সাম্প্রতিক কালে আম্ফান ও বুলবুল,ফণী ঝড়ে প্রচুর বড় বড় গাছ উপড়ে পড়েছে। তাই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ইচ্ছা, এবার সুন্দরবনে ঝড় সইতে পারে এমন-সব গাছ লাগাতে হবে। মুখ্যমন্ত্রীর সেই ইচ্ছাকে প্রাধান্য দিয়ে আপাতত তাল গাছের বীজ রোপণ শুরু হয়েছে বাসন্তী ব্লকের আমঝাড়া গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায়।বৃহষ্পতিবার তালদা শিকারি পাড়া এলাকায় প্রায় তিন কিমি রাস্তার দুপাশে পাঁচ হাজারেরও বেশী তালের বীজ রোপণ করেন গৃহবধু স্বপ্না গাইন , শংকরী মিস্ত্রি, লিপিকা গাইন, কাজল মন্ডল, সুমা গায়েন সহ অন্যান্যরা।

গ্রামের গৃহবধুদের এমন উদ্যোগ কে প্রশংসা করে সুন্দরবনের সমাজসেবী ফারুক আহমেদ সরদার জানিয়েছেন ‘বাস্তবে দেখা গেছে ঝড়ের সময় খেজুর এবং তাল গাছ কিন্তু উপড়ে পড়েনি। এইসব শাখাপ্রশাখাহীন দন্ডায়মান গাছের শিকড় মাটির অনেক গভীরের নীচ পর্যন্ত পৌঁছায়।বাজ পড়া কে আটকায়। মাটিকে শক্তপোক্ত ভাবে ভালো করে আঁকড়ে ধরে রাখে। অনেকটাই ম্যানগ্রোভের মতো। সেই কারণে তাল-খেজুরের উপরেও জোর দিয়েছে গৃহবধুরা।তারপর এই গাছ গুলো সাধারণত গোরু,ছাগল খায় না। ফলে নজরদারী না থাকলেও গাছ হবেই।’

উল্লেখ্য এই তালগাছ বাজ পড়া থেকে অনেকাংশ রক্ষা করে।পাশাপাশি মাটি ক্ষয় রোধ করে।সাথে সাথে প্রাকৃতিক বিপর্যয়ও রোধ করার ক্ষমতা রাখে তাল কিংবা খেজুর গাছ।