বৃহস্পতিবার, ২০শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সুন্দরবনে ৭৭ তম স্বাধীনতা দিবসে ছাত্র-ছাত্রীদের বিজ্ঞান সচেতনতা, রক্তদান শিবির ও কৃষি বিষয়ক সেমিনার

News Sundarban.com :
আগস্ট ১৬, ২০২৩
news-image

নিজস্ব প্রতিনিধি, নামখানা: দুদিন ব্যাপী ৭৭ তম স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানের সমাপ্তি হলো দক্ষিণ চন্দনপিড়ি বিবেকানন্দ ওয়েলফেয়ার সোসাইটিতে।গত সোমবার সকাল ১০ টায় জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা করেন হরিপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রাক্তন প্রধান ধীরেন কুমার দাশ । সংগঠনের পতাকা উত্তোলন করেন সম্পাদক ড. শান্তনু বেরা। স্বামীজীর প্রতিকৃতিতে মাল্যদান করেন নামখানা পঞ্চায়েত সমিতির নবনির্বাচিত সভাপতি অভিষেক দাস ও হরিপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের নবনির্বাচিত প্রধান দেবব্রত মন্ডল। সেই সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট অতিথিবর্গ।

এদিন স্বেচ্ছায় রক্তদান শিবিরের উদ্বোধন হয়। প্রায় ৮০ জন মানুষ এদিন স্বেচ্ছায় রক্তদান করেন। এই দিনের সভায় বোলপুর রামকৃষ্ণ মিশনের মহারাজ স্বামী নির্মলানন্দ উপস্থিত থেকে সুন্দরবন বাঁচাও অভিযানে বেশি করে তালগাছ ও কেওড়া গাছ লাগানোর কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, এই দুটি গাছ ক্যান্সার প্রতিরোধক। এদিন একটি দুস্থ পরিবারকে সংগঠন মাসিক সাহায্য দেওয়ার জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়। এদিন স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে বিজ্ঞান বিষয়ক প্রতিযোগিতা ও বিজ্ঞান বিষয়ক আলোচনা হয়। উপস্থিত ছিলেন ড. অশোক সান্যাল, সভাপতি, পেস; ড. প্রদীপ কুমার দাস – সম্পাদক, পেস; ড. সিদ্ধার্থ নারায়ণ জোয়াদ্দার, কার্যকরী কমিটির সদস্য, পেস; সন্দীপ সেন, কোশাধক্ষ্য, পেস, সুকুমার বেরা, সহ-সম্পাদক, পেস; ড. গোরা ঘোষ, কার্যকরী কমিটির সদস্য, ড. চন্দন বিশই। এদিন বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা পরিষদ সদস্য অখিলেশ বারুই।

পরের দিন অর্থাৎ ১৫ আগষ্ট সকাল আটটায়- জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন প্রদীপ কুমার দাস ও সংগঠনের পতাকা উত্তোলন করে সভাপতি অনুপ মাইতি। স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে বক্তব্য রাখেন ডক্টর দাস এবং কমল কৃষ্ণ মাইতি। এদিন মইনুল হক বৃত্তি প্রদান করা হয় মৌমিতা পরিয়াকে। এরপর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করেন শান্তনু দাস ও মৌমিতা পরিয়া এবং নৃত্য পরিবেশন করেন দেবস্মিতা মাইতি। সমগ্র অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন পায়েল বসাক ।

এদিন কৃষি বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। তাতে বক্তব্য রাখেন কৃষি বিশেষজ্ঞ রনজিত পাল ও শান্তনু দাস। এরপর বিজ্ঞান বিষয়ক প্রতিযোগিতায় নামখানা ব্লকের ৬ টি বিদ্যালয় অংশগ্রহণ করে। এবং শুরু হয় প্রাণী চিকিৎসা ও বন্ধ্যাত্ব দূরীকরণ শিবির (ভ্রাম্যমাণ প্রাণী চিকিৎসা কেন্দ্র, নামখানা ব্লক)। উপস্থিত ছিলেন নামখানা ব্লকের বিএলডিও ডক্টর অনির্বাণ গাঙ্গুলি, নামখানা ব্লকের প্রাণী চিকিৎসক ডক্টর প্রদীপ মান্না ও ভ্রাম্যমান প্রাণী চিকিৎসা কেন্দ্রের ড. ইনজামাম উল হক। সকালে ১১ টায় শুরু হয় “প্রাণী প্রজনন ও বন্ধ্যাত্ব দূরীকরণ” বিষয়ক সেমিনার। এদিন প্রায় ৪০ জন প্রাণী বন্ধু প্রাণী মিত্রা ও প্রাণী সেবীরা এই সেমিনারে অংশগ্রহণ করেন। বিশেষজ্ঞ হিসেবে ছিলেন প্রফেসর ডালিম নন্দী, ড. দুর্গা দাস মন্ডল, ডঃ মধুসূদন সরকার, ড. প্রমোদ নন্দী , ড. প্রদীপ মন্ডল, ড. সলিল সুর রায়চৌধুরী প্রমূখ। সর্বভারতীয় সংস্থা ইশার, প্রাণিসম্পদ বিকাশ বিভাগ ও দক্ষিণ চন্দনপিড়ি বিবেকানন্দ ওয়েলফেয়ার সোসাইটির উদ্যোগে এই প্রানী বন্ধ্যাত্ব দূরীকরণ শিবির ও সেমিনার অনুষ্ঠিত হলো। এই অনুষ্ঠানে দুদিন ব্যাপী জনমানুষের ভীড় ছিল চোখে পড়ার মতো।