রবিবার, ৫ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

নামখানা ব্লকে অনুষ্ঠিত হল যোগ ও শিশু স্বাস্থ্য উৎসব

News Sundarban.com :
জানুয়ারি ২২, ২০২৩
news-image

ঝোটন রয়, নামখানা:

23 শে জানুয়ারি ভারতের বীর সন্তান নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর 124 তম জন্ম জয়ন্তী বর্ষকে সামনে রেখে আজ নামখানা ব্লকে অনুষ্ঠিত হলো যোগ ও শিশু স্বাস্থ্য উৎসব। দক্ষিণ 24 পরগনা জেলা যোগ ওয়েলফেয়ার এন্ড স্পোর্টস অ্যাসোসিয়েশনের বাস্তবায়নে প্রত্যন্ত সুন্দরবনের নামখানা ব্লকের রাজনগর বিশ্বম্ভর হাই স্কুলের মাঠে এটি অনুষ্ঠিত হয়।

পতাকা উত্তোলন ও প্রদীপ প্রজ্জ্বলনের মধ্য দিয়ে এই অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ওয়ার্ল্ড যোগ সোসাইটির সম্পাদক দীপন সুন্দর দাস, ছিলেন রাজনগর বিশ্বম্ভর হাই স্কুলের ভারপ্রাপ্ত শিক্ষক কিশোর পাত্র, উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ 24 পরগনা জেলা যোগ ওয়েলফেয়ার এন্ড স্পোর্টস এসোসিয়েশনের প্রতিষ্ঠাতা রঞ্জিত বালা, এছাড়া ছিলেন অশোক কুমার দাস, বিশ্বজিৎ সাহু, সমাজসেবী বিদ্যুৎ কুমার দিন্দা, বলাই চাঁদ সাঁতরা সহ প্রমুখ ব্যক্তিবর্গ। প্রায় ছয় শতাধিক পড়ুয়াদের নিয়ে ভিন্ন ভিন্ন 8 টি মঞ্চে শিশুদের যোগ প্রাণায়াম প্রদর্শিত হয়।

এই প্রসঙ্গে এসোসিয়েশনের প্রতিষ্ঠাতা রঞ্জিত বালা বলেন, আমাদের 15 তম বর্ষে এই যোগ ও শিশু স্বাস্থ্য উৎসব অনুষ্ঠিত হচ্ছে। যাদের বয়স তিন থেকে পাঁচ বছর তারা এই যোগ প্রাণায়ামে অংশগ্রহণ করেছে। এই বয়সের শিশুদের শারীরিক ও মানসিক বিকাশের মধ্য দিয়ে সুস্থ দেহ তৈরি করতে চাই। রোগ হলে আমরা চিকিৎসার ব্যবস্থা করি। রোগ যাতে না হয় সেই জন্য এখানে ছোট ছোট শিশুদের অঙ্গ সঞ্চালনের মধ্য দিয়ে তাদেরকে সুস্থতার আলোয় দাঁড় করাতে পারি। তিনি আরো বলেন, আমরা ওয়ার্ড যোগ সোসাইটির সঙ্গে যুক্ত রয়েছি। আমরা রোগ ভরা এই দুনিয়ায় বাস করছি। তাই আমাদের খাদ্য মরণব্যাধি তৈরি করে। খাদ্য আমাদের ক্যান্সার তৈরি করে। এই সব থেকে মুক্তির একমাত্র পথ হলো যোগ ও প্রাণায়াম। আমাদের প্রত্যেকের উচিত প্রতিদিন নিয়ম করে যোগ ও প্রাণায়াম করা।

এই যোগা উৎসবে নামখানা ব্লক শুধু নয় সাগর, কাকদ্বীপ, পাথরপ্রতিমা থেকেও ছোট্ট ছোট্ট পড়ুয়ারা এসেছেন এই যোগ প্রদর্শনীতে তাদের যোগ প্রাণায়ামের কারুকার্য উপস্থাপন করতে। এই প্রসঙ্গে নামখানা ব্লকের 103 বছরের প্রবীণ ব্যক্তি ভুবন ওঝা বলেন, যোগ ব্যায়াম স্বাস্থ্যের পক্ষে খুবই উপকারী। আমি প্রতিনিয়ত নিয়ম করে যোগ ও প্রাণায়াম করি। এবং সকালে এবং বিকেলে দেড় কিলোমিটার করে প্রতিদিন হাঁটি। যোগা হল সব রোগের ওষুধ, সব রোগের মূল মন্ত্র। যার ফলে বহুকাল বছর আগে মানুষের শারীরিক কর্ম ক্ষমতার মধ্য দিয়ে নিরোগ থেকেছেন। যার ফলে পৃথিবীতে তাঁদের স্থায়িত্ব ছিলেন বেশি দিন। এখন শুধু নয়, আগামী দিনে আমরা কঠোর পরিশ্রম করতে পারবো না। আমাদের উচিত যোগ ব্যায়ামের মাধ্যমে নিরোগ থাকা।