সোমবার, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় মানবিক পুলিশ

News Sundarban.com :
সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২২
news-image

নিজস্ব প্রতিনিধি, ক্যানিং :  কয়েকদিন আগেও তিন তিনটি খুনের পর সংবাদ শিরোনামে উঠে এসেছিল ক্যানিংয়ের প্রত্যন্ত এলাকা গোপালপুর পঞ্চায়েতের ধর্মতলার জেলে পাড়া গ্রামের নাম। আর সেই এলাকাতেই এবার পুলিশের দেখা গেল মানবিক মুখ। নিজেদের উদ্যোগেই শতাধিক মানুষকে পুজোর আগে কিছু নতুন বস্ত্র সামগ্রী বিতরণ করা হলো। যার মধ্যে ছিল শিশুদের জামা কাপড় বয়স্কদের শাড়ি ধুতি ও ফতুয়া এবং পাঞ্জাবি।

মূলত ক্যানিং এর প্রত্যন্ত এলাকা হওয়ার কারণে দারিদ্রতা এখানকার মানুষের নিত্য সঙ্গী। আর তাই দারিদ্রতার কারণেই প্রতিনিয়ত লেগে থাকে মানুষের মধ্যে সংঘর্ষ। যা কখনো কখনো রূপ পায় খুনের মত ঘটনায়। এবার তাই এলাকার মানুষের জন্য এগিয়ে এলো পুলিশের একটি গ্রুপ। যাঁরা সকলেই ১৬৫ নম্বর(১৯৯৩) ব্যাচে চাকরি পেয়েছিলেন বেঙ্গল পুলিশে। সেই সব পুলিশ অফিসাররাই এদিন এই প্রত্যন্ত এলাকাকেই বেছে নিলেন সাহায্য করার জন্য। এই গ্রুপের সদস্যরা জানিয়েছেন তারা প্রতিবছর নিজেদের মধ্যে আর্থিক সংস্থান করে দুঃস্থ মানুষের মধ্যে কিছু নতুন বস্ত্র এবং অন্যান্য সামগ্রী তুলে দেন।

বিভিন্ন জেলাতে হলেও এবছর ক্যানিংয়ের এই প্রত্যন্ত গ্রামকেই বেছে নিয়েছেন। পূজোর আগে নতুন জামা কাপড় পেয়ে খুশি এলাকার মানুষরাও। রবিবার একটি ছোট্ট অনুষ্ঠানের মাধ্যমে মানুষের হাতে এই সমস্ত বস্ত্র তুলে দেন ক্যানিংয়ের মহাকুমা পুলিশ আধিকারিক দিবাকর দাস ক্যানিং থানার আইসি সৌগত ঘোষ এবং অফিসার রঞ্জিত চক্রবর্তী সহ অন্যান্যরা। এ বিষয়ে মহাকুমা পুলিশ আধিকারিক দিবাকর দাস বলেন, খুবই দরিদ্র এলাকা।সাধারণ মানুষ খুব আর্থিক কষ্টেই এখানে দিন কাটায়। তাই পুলিশ মানবিক হিসাবে তাদের পাশে দাঁড়ালেন।