শুক্রবার, ২২শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

‘বিনা কারণেই রটিয়ে দেওয়া হয়েছে দেশে মাত্র ৪ দিন চলার মতো কয়লা মজুত রয়েছে’

News Sundarban.com :
অক্টোবর ১০, ২০২১
news-image

দেশজুড়েই কয়লা সঙ্কট চরমে। অন্ধকারে ডুবে যেতে পারে খোদ রাজধানী। এমনটাই আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন দিল্লির বিদ্যুত্ মন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈন। এনিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। উদ্বেগ প্রকাশ করেছে, ওড়িশা, অন্ধ্রপ্রদেশও। তবে কেন্দ্রীয় বিদ্যুত্ মন্ত্রীর দাবি, অহেতুক আতঙ্কের কোনও কারণ নেই। কয়লার অভাব নিয়ে আতঙ্ক তৈরি করা হচ্ছে।

কেন্দ্রীয় বিদ্যুত্ মন্ত্রী আর কে সিং রবিবার বলেন, ‘আমাদের হাতে পর্যাপ্ত বিদ্যুত্ রয়েছে। গোটা দেশেই ঠিকঠাক বিদ্যুত্ সরবারহ করা হচ্ছে। কোনও রাজ্যের বিদ্যুতের প্রয়োজন হলে তারা কেন্দ্রকে জানাতে পারে। আমরা তা সরবারহ করব। বিনা কারণেই রটিয়ে দেওয়া হয়েছে দেশে মাত্র ৪ দিন চলার মতো কয়লা মজুত রয়েছে। দিল্লিতেও প্রয়োজন মতো বিদ্যুত্ সরবারহ করা হবে। লোডশেডিংয়ের কোনও প্রশ্ন নেই। দেশ ও বিদেশ থেকে আমদানি করা কয়লার সরবারহ ঠিকঠাকই রয়েছে।’

উল্লেখ্য, এসপ্তাহেই গুজরাট, পঞ্জাব, রাজস্থান, দিল্লি ও তামিলনাড়ুর মতো রাজ্য অভিযোগ করেছে তাদের তাপ বিদ্যুত্ কেন্দ্রগুলিতে মজুত কয়লা প্রায় শেষ হওয়ার মুখে। পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় পালা করে বিদ্যুত্ সরবারহ বন্ধ রাখা হচ্ছে।শনিবারই শোনা গিয়েছিল দেশের তাপ বিদ্যুত্ কেন্দ্রগুলিতে ব্যবহারের জন্য মাত্র ৪ দিনের কয়লা মজুত রয়েছে।

তাতেই বিভিন্ন রাজ্যে আতঙ্ক তৈরি হয়ে যায়। তবে আর কে সিং জানিয়েছেন, যে মজুতের কথা বলা হয়েছে তা মজুতই। সেটি শেষ হয়ে যাবে এমনটা নয়। কারণ কয়লা সরবারহ বজায় থাকছে। টানা বৃষ্টি ও খনিগুলি জলে ডুবে যাওয়ার জন্য কয়লা উত্তোলনে সমস্য়া হয়েছে ঠিকই তবে চাহিদার বৃদ্ধির জন্য কয়লার জোগান কম রয়েছে বলে মনে হয়েছে।-zee24