শুক্রবার, ২২শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

গোসাবার উপনির্বাচনে তৃণমূলের প্রার্থী ঘোষণা করল শাসক দল

News Sundarban.com :
অক্টোবর ৪, ২০২১
news-image

বিশ্লেষণ মজুমদার,ক্যানিং – উপনির্বাচনে প্রার্থী ঘোষণা করল তৃণমূল। অন্যান্য দলের তরফ থেকে এখনও পর্যন্ত কারোর নাম ঘোষণা করা হয়নি। তবে দু-একদিনের মধ্যেই প্রতিদ্বন্দিতায় নেমে পড়বেন সমস্ত রাজনৈতিক দলের নেতারাই। ঘোষণা হবে প্রার্থী তালিকা। আর প্রথমেই নাম ঘোষণা করেই ইতিমধ্যেই বেশ কিছু ক্ষেত্রে অ্যাডভান্টেজ নিয়েছে শাসক দলের প্রার্থীর সুব্রত মন্ডল। ইতিমধ্যেই প্রার্থীর সমর্থনে শুরু হয়েছে প্রচার, দেয়াল লিখন, এবং রোড শো।

সুব্রত বাবু বহুদিন ধরেই বাম রাজনীতির বিরোধী বলেই পরিচিত এলাকায়। বেশকিছু যাবৎ কংগ্রেসে পরিবার এবং পরে তৃণমূলে যোগদান। পরিবারের সকলেই প্রায় জনপ্রতিনিধি। তাই বিধানসভাতে প্রচারের ক্ষেত্রে অনেক বেশি সুবিধা পাবেন তিনি। রবিবার নাম ঘোষণা হতেই দলীয়কর্মীরা নেমে পড়েন সুব্রত বাবুর হয়ে দেয়াল লিখনের কাজে। বহু জায়গায় শুরু হয়ে গেছে দেয়াল লিখন পর্ব।

 

বিধানসভা ভোটে শাসক তৃণমূল ২৩৭০৯ ভোটে জয়লাভ করে বিধানসভাতে। তিনবারের বিধায়ক হিসেবে নির্বাচিত হন জয়ন্ত নস্কর। এরপর করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান তিনি। আর তারপরেই এই আসনটি শূন্য হয়। একাধিক দাবিদার ছিলেন গোসবা বিধানসভা কেন্দ্রে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করার জন্য। পরিবারের তরফ থেকেও জয়ন্ত নস্করের ছেলে বাপ্পাদিত্য নস্কর কে প্রার্থী করার ব্যাপারেও দলের একাংশ রাজিও ছিল। কিন্তু সুব্রত বাবুর এলাকার জনসংযোগের কাছে হেরে যান তিনি।

এ বিষয়ে প্রার্থীর সুব্রত মন্ডল বলেন, দীর্ঘদিন ধরে বালি ১ গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান থাকার সুবাদে এলাকার মানুষের সাথে যেমন পরিচিতি আছে তেমনি গোসাবা বিধানসভার বিভিন্ন দ্বীপে দ্বীপে ঘুরে বেড়িয়েছি সংগঠন সামলানোর কাজে।” তাই এবার নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বতায় তিনি যে বিজয়ী হবেন এ ব্যাপারে আশা প্রকাশ করেছেন সে ।

গোসাবা বিধানসভা কেন্দ্রের বিগত নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন বিজেপি প্রার্থী বরুণ ওরফে চিত্ত প্রামানিক। ইতিমধ্যেই সদলবলে যোগদান করেছেন তৃণমূলে। তাই বিজেপি এখন কাকে প্রার্থী করে সেটাই এখন দেখার। অন্যদিকে দীর্ঘদিন ধরেই বামফ্রন্টের লালদুর্গ হিসেবে ছিল গোসাবা। সেখানে গত বিধানসভাতে বামপ্রার্থীর প্রায় জামানাত জব্দ হওয়ার উপক্রম। তবে খুব শীঘ্রই বাম প্রার্থী ঘোষিত হবে বলে জানিয়েছেন আর এসপির প্রাক্তন মন্ত্রী সুভাষ নস্কর।