বুধবার, ১৬ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

আন্তর্জাতিক পরিবেশ দিবসে সুন্দরবন সহ নদী নদীবাঁধ ভাঙন রুখতে বৃক্ষ রোপণ করে শপথ 

News Sundarban.com :
জুন ৫, ২০২১
news-image

নিউজ সুন্দরবন ডেস্ক -আন্তর্জাতিক পরিবেশ দিবসে নদীবাঁধের ভাঙন রুখতে সুন্দরবনের নদীবাঁধের পাড়ে  ম্যানগ্রোভের পাশাপাশি এবার ঝামটা ও ঘন পাতা যুক্ত তরাগাছ রোপণ শুরু করলে গ্রামের দুর্গারা। । সাম্প্রতিক ‘ইয়াস’ আর জলোচ্ছ্বাস থেকে থেকে শিক্ষা নিয়ে এমন চারাগাছ লাগানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রত্যন্ত সুন্দরবনের ঝড়খালি সবুজবাহিনী।

সাম্প্রতিক ইয়াস কিংবা বিগত দিনের আয়লা,আম্ফান বুলবুল,ফণি ঝড়ে প্রচুর বড় বড় গাছ উপড়ে পড়েছে। তাই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন সুন্দরবনে ঝড় সইতে পারে এমন-সব গাছ লাগাতে হবে। মুখ্যমন্ত্রীর সেই ইচ্ছাকে প্রাধান্য দিয়ে শনিবার আন্তর্জাতিক পরিবেশ দিবসে ঝড়খালি বিদ্যাসাগর পল্লির সবুজ বাহিনীর মহিলা অনিতা বাউলি, নিলিমা সানা, মালতি মণ্ডল, দ্রৌপদি মণ্ডল, প্রিয়া বৈদ্য, উমা বিশ্বাস,যশোদা মণ্ডল,সারথি দাস, কপ্পুরী শীল, শান্তী দাস’রা গাছ রোপণ শুরু করলেন। এদিন বিদ্যাধরী নদীর বাঁধে কয়েক হাজার ম্যানগ্রোভ চারাগাছ সহ তাল ও খেজুর বীজ বপন করেন মহিলারা।

উল্লেখ্য ‘বাস্তবে দেখা গেছে ঝড়ে খেজুর এবং তাল গাছ কিন্তু উপড়ে পড়েনি। এইসব শাখাপ্রশাখাহীন দন্ডায়মান গাছের শিকড় মাটির অনেক গভীরে র নীচ পর্যন্ত পৌঁছায়। মাটিকে শক্তপোক্ত ভাবে ভালো করে আঁকড়ে ধরে রাখে। অনেকটাই ম্যানগ্রোভের মতো। সেই কারণে এইসব তাল-খেজুর গাছ নদীবাঁধ রক্ষায় ভাল কাজ করবে।’

এছাড়াও নদীবাঁধ ভাঙন রুখতে সুন্দরবনে সর্ব প্রথম নদীর তীরে তাল এবং খেজুর বীজ রোপণের উদ্যোগ নিয়েছিলেন প্রত্যন্ত সুন্দরবনের ঝড়খালি গ্রামপঞ্চায়েত এলাকার স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ’সবুজ বাহিনী’। বিগত ২০১৯ সালে অক্টোবর মাসে প্রায় ৫ কিলোমিটার নদী বাঁধে তাল ও খেজুর বীজ রোপণ করার সময় অনেকে হাসিঠাট্টা করেছিলেন এমন কাজের জন্য। বর্তমানে নদীবাঁধ ভাঙন রুখতে কিংবা বাজ পড়া রুখতে তাল কিংবা খেজুর গাছের জুড়িমেলা ভার।ফলে বিগত দিনের সেই রহস্য আজ বাস্তবে বাঁচার জন্য এক নবদিগন্ত। ফলে খুশি ঝড়খালি সবুজ বাহিনীর মহিলারা।