বুধবার, ১৬ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

পুলিশকে ভুল ঠিকানা , হত্যার মামলায় গ্রেপ্তার বাবুল

News Sundarban.com :
মে ১৪, ২০২১
news-image

স্ত্রী মাহমুদা খানম (মিতু) হত্যাকাণ্ডে পাঁচ বছর পর গ্রেপ্তার বাবুল আক্তার পুলিশকে তাঁর বাসার ভুল ঠিকানা দিয়েছেন। মিতুর বাবা মোশাররফ হোসেন বাদী হয়ে চট্টগ্রামের পাঁচলাইশ থানায় যে মামলা করেছেন, সেখানেও তাই বাবুল আক্তারের ঢাকার ঠিকানা ভুলভাবে লেখা হয়েছে।

আজ শুক্রবার বিষয়টি মামলা তদন্তের দায়িত্বে থাকা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) নজরে আসে। পিবিআইয়ের উপমহাপরিদর্শক বনজ কুমার মজুমদার প্রথম আলোকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে গতকাল বৃহস্পতিবার মামলার এজাহারের তথ্য নিয়ে প্রথম আলো বাবুল আক্তারের বাসাটি খুঁজে বের করার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। এজাহারের তথ্য অনুযায়ী, বাবুল আক্তারের বাসার ঠিকানা লেভেল-৭, সড়ক নম্বর ১১, বাসা নম্বর ২২, ব্লক সি, বাবর রোড। আদতে মোহাম্মদপুরের বাবর রোডে কোনো বাসার হোল্ডিং নম্বরই এমন নয়। ঘণ্টা দুয়েক খুঁজেও তাই বাসাটি পাওয়া যায়নি।

বাবুল আক্তারের শ্বশুর মোশাররফ হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, বাবুল আক্তার পিবিআইকে যে ঠিকানা দিয়েছেন, তার ভিত্তিতেই তিনি মামলায় ওই ঠিকানা লেখেন।

ওই ঠিকানায় মিতুর দুই সন্তান বাবুল আক্তারের বর্তমান স্ত্রীর সঙ্গে আছেন বলে বাবুল পুলিশকে জানিয়েছিলেন। নাতি-নাতনিদের নিয়ে তাঁরা চিন্তায় আছেন।

শুক্রবার ভুল ঠিকানা দেওয়ার বিষয়টি জানতে পেরে বাবুল আক্তারের কাছে সঠিক ঠিকানা চায় পিবিআই। প্রথমে তিনি ঠিকানা দিতে অস্বীকৃতি জানান। পরে ঠিকানা দিয়ে দেন। বাবুল আক্তারের গাড়িচালকের সহায়তায় ঠিকানা শনাক্ত করার চেষ্টা করে তারা। এই গাড়িচালককে নিয়েই বাবুল আক্তার পিবিআইয়ের ডাকে গত সোমবার চট্টগ্রাম গিয়েছিলেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মোহাম্মদপুরের ওই বাসায় তাঁর স্ত্রী ও সন্তানেরা নেই। সোমবারই তাঁরা বাসায় তালা দিয়ে চলে গেছেন। ওই ভবনের নিরাপত্তারক্ষী মো. রিপন প্রথম আলোকে বলেন, ‘স্যার সোমবার অফিসের গাড়িতে চট্টগ্রাম গেছেন। ওই দিনই ওনার ফ্যামিলি চলে যায়।’