বুধবার, ৬ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

দাড়ি থাকলেই সবাই রবীন্দ্রনাথ হয় না, নাম না করে আক্রমণ মমতার

News Sundarban.com :
মার্চ ২৬, ২০২১
news-image

নিউজ সুন্দরবন ডেস্ক: সকাল থেকে মিথ্যা কথা বলছে। হেরে যাবে বলে নির্বাচন কমিশনের কাছে মিথ্যা নালিশ করছে। সাহস থাকলে লড়াই কর। ডেবরায় নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে বিজেপিকে আক্রমণ শানালেন মমতা। কফি হাউসে গিয়ে গুন্ডাগিরি করছে। গুন্ডাদের দল। বলেছিল ১৫ লক্ষ টাকা দেবে, দিয়েছে? গ্যাসের দাম এরপর হবে ২০০০ টাকা। বিজেপি, তুমি তো একটা গ্যাস বেলুন।
কেন্দ্রীয় নেতাদের তোপ দেগে বলেন, ওদের একটা হোদল কুতকুত নেতা আছে। আমাকে খেয়ে নেবে? আমাকে গিলে খেয়ে নিলে, পেট ফুঁড়ে বেরিয়ে আসব।

সব ধর্মকে সম্মান জানানোই আমাদের শিক্ষা। বিজেপি নেতারা অন্য ধর্মের লোকের বাড়িতে খান না। আমাকে হিন্দু ধর্ম শেখাতে আসবেন না। চন্দ্রকোণার সভা থেকে আক্রমণ মমতার। রেল, পোর্ট বিক্রি করে দিচ্ছে। বলছে সপ্তম পে কমিশন করবে। ত্রিপুরায় কী করেছে? প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটি বন্ধ করে দিয়েছে। শিক্ষকদের তাড়িয়ে দিয়েছ। এখানে নেচে নেচে বেড়াচ্ছে। কয়েকটা হিন্দু মহাসভার দল। আমি বলি, আপনাদের লজ্জা করে না? শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের যখন ফটো পোড়ায় বিজেপি, তখন আপনারা কী করেন? হাতে চুড়ি পরে বসে থাকেন? লজ্জা করে না হিন্দু শেখাচ্ছে আমাকে! ব্লাড ব্যাঙ্ক থেকে যখন রক্ত নেওয়া হয় তখন কি জানেন হিন্দুর রক্ত না মুসলিমের রক্ত? প্রশ্ন মমতার। রামকৃষ্ণ বলতেন, টাকা মাটি, মাটি টাকা। টাকার থেকে মাটির দাম বেশি। তিনি বলতেন, মা কিন্তু একটাই, নামে-ডাকে একটু আলাদা আছে।

রাজ্যে এসে মিথ্যে বলছে। বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙছে, বড় বড় কথা বলছে। বিদ্যাসাগরের মূর্তি যারা ভাঙে, তারা বাংলাকে ভালবাসে? দাড়ি থাকলেই সবাই রবীন্দ্রনাথ হয় না। নাম না করে মোদি আক্রমণ মমতার। তিনি বলেন, সবাইকে চোর বলেন, নিজেরা ডাকাতদের ঠাকুর্দা। সভায় বিজেপিকে আক্রমণ শানালেন মমতা।

এবার আমাদের সরকারকে ভোট দিলে বিনা পয়সায় চাল দেব। দুয়ারে দুয়ারে পৌঁছে দেব চাল। দাসপুরে নির্বাচনী সভায় বললেন মমতা। তিনি এদিন বলেন, স্বাস্থ্যসাথী কার্ডে মেয়েরা বাবা, মায়ের চিকিৎসা করাতে পারবে। সরকারি সুবিধা না পেলে দুয়ারে সরকারে জানান, কাজ হয়ে যাবে। ৪০ লক্ষ জাতিগত শংসাপত্র দেওয়া হয়েছে। দাবি মমতার।

সোনার, জড়ির ক্লাস্টার তৈরি হবে, কাজের প্রতিশ্রুতি দিলেন মমতা। দিলীপ ঘোষ জিতে পালিয়ে গেছে, কিছু দিয়েছে?। আমরা যা প্রতিশ্রুতি দিয়েছি, তা করেছি। দাসপুরে বললেন মমতা।
সভায় কেন্দ্রের কৃষকবিলের প্রতিবাদে মমতা বলেন, কৃষকরা যাতে রাস্তায় বেরোতে না পারেন পেরেক পুঁতে দেওয়া হয়েছে। যীশু খ্রীস্টকেও ক্রুশ বিদ্ধ করে মারা হয়।কৃষকরা যাতে রাস্তায় বেরোতে না পারেন পেরেক পুঁতে দেওয়া হয়েছে। যীশু খ্রীস্টকেও ক্রুশ বিদ্ধ করে মারা হয়।
বিস্তারিত আসছে…