সোমবার, ২৩শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

আগে আমাকে মারত সিপিএম, এখন মারে বিজেপি’, গোপীবল্লভপুরে মমতা

News Sundarban.com :
মার্চ ১৭, ২০২১
news-image

নিউজ সুন্দরবন ডেস্ক: ঝাড়গ্রামে সার্কিট ট্যুরিজম কাজ চলছে। আমি চাই এখানে অনেক শিল্প হোক। মানুষ ঝাড়গ্রাম, গোপীবলভপুর, লালগড়কে দেখতে আসুক। এদিন গোপীবল্লভপুরে বললেন মমতা। বিজেপি আদিবাসীদের জমি কেড়ে নেয়। সারা দেশে ৪০ শতাংশ বেকারি বেড়েছে। বাংলায় বেকারি কমে গেছে। সারা ভারত বাংলার দিকে তাকিয়ে আছে। বিজেপি সব থেকে বড় চোর। বিজেপি শাসিত উত্তর ভারতে মেয়েদের ওপর অত্যাচার সবথেকে বেশি।’

বছরে চারমাস করে দুয়ারে সরকার হবে। নাম লেখালেই সব সরকারি সুযোগ পাওয়া যাবে। আগামীদিনে মানুষের দরজায় রেশন পৌঁছে যাবে। বিনামূল্যে খাদ্য, স্বাস্থ্য, শিক্ষা। সরকার থেকে বাচ্চারা জুতো, বই, মিড-ডে মিল ব্যাগ পায়।’
বিজেপি নেতারা কখনও কখনও আসেন। ফাইভ স্টার হোটেল থেকে খাবার আনিয়ে খান। একটা তফশিলি গ্রামবাসীকে বলে তোমার ঘরটা ভাড়া দেবে। ৫ হাজার টাকা দেয় তাদের। তাঁদের বাড়িতে বসে খাবে, লোক দেখাবে। খায় কিন্তু হোটেল থেকে আনা খাবারটাই। শুধু গ্রামবাসীদের তৈরি করা খাবার সাজিয়ে রাখে। এটা তফসিলিদের অপমান, বলেন মমতা।
তিনি বলেন , আমাকে সারাজীবন মেরেছে। আগে মারত সিপিএম, এখন মারে বিজেপি। সিপিএমের হার্মাদরা এখন বিজেপিতে। আমার মাথা ভেঙে দিয়েছে, আমার কোমরে চোট, বেল্ট পরে ঘুরি। বিজেপিরা লুঠেরারা এলে রুখে দাঁড়ান।
আমরা সবাইকে বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দিতে চেয়েছিলাম। আমরা চিঠি দিয়েছিলাম। বলেছিলাম ভ্যাকসিনের টাকা আমরা দিয়ে দেব। কথা শোনেনি মোদী সরকার। বিহারে টিকার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। এখনও বিহারে মানুষ টিকা পাননি।
দুঃশাসনের ফ্যাক্টরি বিজেপি। আমাদের চোর বলে! সবচেয়ে বড় দুর্নীতিবাজ বিজেপি। বিজেপি ঝাড়গ্রামের মানুষদের সমস্যার কথা জানে না। আপনাদের মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। এবার আপনারা শূন্য করে দিন।

সেখানে তিনি বলেন,‘বিরসা মুণ্ডা, রঘুনাথ মুর্মু, গুরুচাঁদ ঠাকুরের জন্মদিনে ছুটি দিয়েছি। ৪০ শতাংশ কর্মসংস্থান হ্রাস পেয়েছে। রেল, ব্যাঙ্ক, বিএসএনএল- সব বন্ধ করে দিয়েছে। একবার বিজেপিকে ভোট দিয়ে ঠকেছেন, বিজেপি আর না।’
বহিরাগত গুণ্ডারা এসে ভোট লুঠ করে নিয়ে যাবে। বিজেপি ক্ষমতায় এলে সব লুঠ হয়ে যাবে। দুরাচার আর দুঃশাসনের পার্টি বিজেপি। কুৎসা আর অপপ্রচারের কারখানা বিজেপি। সিপিএম-এর হার্মাদরা এখন বিজেপির ওস্তাদ। সবুজ সাথী পেয়েছে এক কোটি ছেলে-মেয়ে। বিজেপি সরকার শুধু হামলা-কুৎসা-অপপ্রচার করে।’