সোমবার, ২৯শে মে, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

ভুলতে পারিনি নিজের নাম, ভুলব নাকো নন্দীগ্রাম’: মমতা

News Sundarban.com :
মার্চ ৯, ২০২১
news-image

নিউজ সুন্দরবন ডেস্ক: আসন্ন নির্বাচনে হটস্পট নন্দীগ্রাম। আজ থেকে সেখানে প্রচার শুরু করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রার্থী ঘোষণা হওয়ার পর এই প্রথমবার নন্দীগ্রামে পা রাখলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর পা রেখেই নন্দীগ্রামের কর্মীসভায় তিনি ফিরিয়ে আনেন পুরনো স্লোগান, ‘ভুলতে পারি সবার নাম, ভুলব না কো নন্দীগ্রাম’। নন্দীগ্রাম, আপনারাই লড়াই করতে শিখিয়েছেন। সারা পৃথিবীতে নন্দীগ্রাম পৌঁছে গিয়েছে। আমার দুচোখ নন্দীগ্রাম। ভুলতে পারিনি নিজের নাম, ভুলব নাকো নন্দীগ্রাম।
নন্দীগ্রামে প্রার্থী হওয়ার পর মমতাকে ‘বহিরাগত’ বলে আক্রমণ করা শুরু করেছেন শুভেন্দু অধিকারী। এদিন কর্মীসভায় দাঁড়িয়ে মমতা বলেন, ‘আমি যখন নন্দীগ্রামে এবার প্রথম এলাম, তখন কোনও বিধায়ক ছিল না। আমি মানুষগুলোর মুখের দিকে তাকিয়ে বলেছিলাম, আমি যদি প্রার্থী হই। নন্দীগ্রামের মানুষের কথাতেই ভবানীপুর ছেড়ে এখান থেকে দাঁড়াচ্ছি।

কেউ বলছেন আমি বহিরাগত। আমি বাংলার মেয়ে তুমি দিল্লির হয়ে বহিরাগত হলে না। বহিরাগত হলে আমি তো মুখ্যমন্ত্রী হওয়া উচিত ছিল না। যদি আপনারা মনে করেন আমার দাঁড়ানো উচিত না, বলে দিন। কাল নমিনেশন আছে। বলে দিন আমি চলে যাব। দাড়াব না। যদি আপনারা বলেন তবেই আমি দাঁড়াব। আপনােদর অনুমতি প্রয়োজন।
তিনি বলেন, ‘আমিও হিন্দু ঘরের মেয়ে। আমাকে হিন্দুত্ব বোঝাতে আসবেন না।’ এরপরই চণ্ডীপাঠ করেন তিনি। সারা পৃথিবীতে একটাই নাম নন্দীগ্রাম। তোমায় প্রণাম তোমায় সেলাম। সেদিন মা বোনার লড়াই করেছেন। তাদের স্যালুট। ভাই বোনেদের অভিনন্দন। সকল ধর্মগুরুদের সম্মান জানাই। একতাই শক্তি। সর্ব ধর্ম সমন্বয় এটা মাথায় রেখে চলবেন।
কথা রাখা আমার কথা। ভাঁওতা দিয়ে রাজনীতি করেনি না। মন দিয়ে রাজনীতি করি। হলদিয়ার সঙ্গে নন্দীগ্রামেক জুড়ে দেব।
জল প্রকল্পের কাজ চলছে। রাঙাহাট, স্বর্ণময়ী কলেজ, শহীদ বেদী, কিষাণমাণ্ডি, কর্মতীর্থ, হাসপাতাল আমার তৈরি। আগামীদিনে নন্দীগ্রামকে আমি মডেল নন্দীগ্রাম তৈরি করতে চাই। তমলুকে বিশ্ববিদ্যালয় করছি। এখানেও বিশ্ববিদ্যালয় তৈরির কথা ইস্তেহারে রাখছি।