বৃহস্পতিবার, ৭ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

DYFI কর্মীর মৃত্যুতে উত্তেজনা কলকাতার একাধিক জায়গায়, পুলিশ কর্মীকে বেধড়ক মারধর বাম ছাত্র-যুবদের

News Sundarban.com :
ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০২১
news-image

নিজস্ব প্রতিনিধি: DYFI কর্মী মইদুল ইসলামের মৃত্যুতে দফায় দফায় উত্তেজনা ছড়াল কলকাতার একাধিক জায়গায়। এদিন বিকেলে দীনেশ মজুমদার ভবনের সামনে DYFI কর্মীদের বিরুদ্ধে পুলিশকর্মীদের হেনস্থা করার অভিযোগ ওঠে। ওদিকে ময়নাতদন্তে দেরি হওয়ায় পুলিশ মর্গের সামনেও ছড়ায় উত্তেজনা।
এদিন দুপুরে মধ্য কলকাতার জোড়া গির্জার উলটো দিকে দীনেশ মজুমদার ভবনের সামনে জমায়েত করতে থাকেন বাম যুবারা। সেখানে নিহত দলীয় কর্মীর দেহ পৌঁছনোর কথা। জমায়েতের জেরে আচার্য জগদীশ চন্দ্র বসু রোডে যান চলাচল বাধাপ্রাপ্ত হলে বাম কর্মীদের গলির মধ্যে ঢুকে যেতে বলেন কয়েকজন পুলিশকর্মী। পালটা ওই পুলিশকর্মীদের আক্রমণ করেন বাম যুবারা। একজন পাশে একটি রেস্তোরাঁয় ঢুকে পড়েন। অন্য জনের সঙ্গে হাতাহাতি শুরু হয়ে যায় বাম কর্মীদের তাতে ওই পুলিশকর্মীর উর্দি ছিঁড়ে যায়। তালতলা থানার এএসআই অভিনব দত্তর উর্দির কলার চেপে ধরেন এক বাম কর্মী। এরপর তাঁর উপরে চড়াও হন বাকিরা। প্রাণ বাঁচাতে কোনওক্রমে দৌঁড়ে একটি রেস্তোরাঁয় আশ্রয় নেন অভিনব দত্ত। প্রায় আধ ঘণ্টা পর লালবাজার থেকে আসে বাহিনী। পোশাক বদল করিয়ে উদ্ধার করা হয় তাঁকে।
পুলিশ মর্গের সামনে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন বাম যুবারা। তাদের অভিযোগ, ইচ্ছা করে ময়নাতদন্তে দেরি করছে পুলিশ। দিনের বেলা তারা দেহ পরিবারের হাতে তুলে দিতে চায় না। তাই এই টালবাহানা। এই অভিযোগে পুলিশের বিরুদ্ধে স্লোগান দিয়ে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন বাম যুবারা।
DYFI কর্মীরা বেধড়ক মারধর করে পুলিশকে। ছিঁড়ে দেওয়া হয় উর্দি। ধুন্ধুমার পরিস্থিতি তৈরি হয় মৌলালিতে। অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে কলকাতার ব্যস্ততম ওই এলাকা। দীর্ঘক্ষণ পর নিয়ন্ত্রণে আসে পরিস্থিতি। SFI এর রাজ্য সম্পাদকের দাবি, অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করছিলেন পুলিশ আধিকারিকরা। সেই কারণেই উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। তাঁদের কর্মীরাই উদ্ধার করে পুলিশকে। মৌলালির পাশাপাশি পুলিশ মর্গের সামনেও উত্তেজনা ছড়িয়েছে। ময়নাতদন্ত নিয়ে একেকবার একেকরকম মন্তব্য করা হচ্ছে বলে অভিযোগ। ময়নাতদন্তে দেরি হলে মইনুলের দেহ নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ি যাওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন আবদুল মান্নান-সুজন চক্রবর্তী । এদিকে কলেজস্ট্রিটে পোড়ানো হল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি।