সোমবার, ২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

আগামী দুই দিনে আরও ৪২৯ রান করতে হবে ইংল্যান্ডকে

News Sundarban.com :
ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০২১
news-image

কাল ক্যারিয়ারের ২৯তম ইনিংসে ৫ উইকেট-কীর্তির পর রবিচন্দ্রন অশ্বিন বলেছিলেন, ‘উইকেট নিয়ে কান্নাকাটির কিছু নেই। সিমিং উইকেটে খেলার মতো এখানেও (স্পিনবান্ধব উইকেট) আপনাকে ধৈর্য ধরতে হবে। ইনিংসের শুরুতে ঝড়-ঝাপটা সামলে টিকে থাকলেই পরে রান আসতে শুরু করে।’

আজ যখন ভারতের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নামলেন, তখন সেটিই করে দেখালেন একসময় টেস্টে বিশ্বের সেরা অলরাউন্ডার হওয়া এই অফ স্পিনার। অশ্বিন যখন আজ ব্যাটিংয়ে নামলেন, তখন কিছুটা বিপদের মধ্যেই ছিল দল। ১০৬ রান স্কোরবোর্ডে তুলতেই ৬ উইকেট হারিয়ে বসেছিল ভারত। প্রথমে বিরাট কোহলির সঙ্গে ৯৬ রানের জুটি গড়ে সে বিপদ সামাল দিলেন। এরপর নিজের শহরের টেস্টটিকে ধীরে ধীরে নিয়ে গেলেন ইংল্যান্ডের প্রায় ধরাছোঁয়ার বাইরে। হ্যাঁ, ধরাছোঁয়ার বাইরেই তো। হাতে গোটা দুটি দিন রেখে ইংলিশদের এই টেস্টে জিততে ইংল্যান্ডকে করতে হবে ৪৮২ রান। টেস্ট ইতিহাসে এত রান তাড়া করে জেতার রেকর্ড নেই আর কারোরই। আগামী দুই দিনে আরও ৪২৯ রান করতে হবে ইংল্যান্ডকে, হাতে আছে মাত্র ৭ উইকেট।

নিজের পঞ্চম টেস্ট সেঞ্চুরিটাও এই ফাঁকে তুলে নিয়েছেন অশ্বিন। ১৪৮ বলে ১০৬ রান করে শেষ পর্যন্ত ফিরেছেন তিনি। ১৪টি বাউন্ডারি মেরেছেন, আছে একটি ছক্কাও। চেন্নাইয়ের ধূলি উড়তে থাকা উইকেটে ধৈর্য ধরেছিলেন। শুরুর ঝড়-ঝাপটা সামলেছেন দারুণভাবেই। টিকে থাকলেই কঠিন উইকেটেও যে রান আসে, অশ্বিন সেটি প্রমাণ করলেন।

বিরাট কোহলি করেছেন ৬২ রান। ১৪৯ বলে ৭ বাউন্ডারিতে সাজানো তাঁর ইনিংস। তাঁকে ফেরান মঈন আলী। দ্বিতীয় ইনিংসে ভারতের ইনিংস থেমেছে ২৮৬ রানে। শুবমান গিল ফিরেছিলেন কালই। আজ দিনের শুরুতেই জ্যাক লিচের বলে স্টাম্পিংয়ের শিকার হয়ে ২৬ রানে ফেরেন প্রথম ইনিংসে সেঞ্চুরি করা রোহিত।

চেতেশ্বর পূজারা আবারও দুর্ভাগ্যের শিকার হয়েছেন অদ্ভুত এক রানআউটে। ক্রিজ থেকে বেরিয়ে মারতে গিয়ে সেটি মিস করার পর আবারও ফিরতে চেয়েছিলেন। কিন্তু হাত থেকে ব্যাট পড়ে যায় তাঁর। সেটিও পড়ে পপিং ক্রিজের ঠিক বাইরে। চেন্নাইয়ের প্রথম টেস্টেও অদ্ভুতভাবে কট আউট হয়েছিলেন তিনি। অজিঙ্কা রাহানে আর ঋষভ পন্তও আউট হন জ্যাক লিচ আর মঈন আলীর ঘূর্ণিতে।

৪৮২ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে তৃতীয় দিন শেষ চোখে অন্ধকারই দেখছে ইংল্যান্ড। ৫৩ রান তুলতেই ৩ উইকেট নেই তাদের। আউট হয়ে ফিরেছেন রোরি বার্নস, ডম সিবলি আর নাইটওয়াচম্যান জ্যাক লিচ। জো রুট আর ড্যান লরেন্স অপরাজিত থেকে লড়াইটা চালিয়ে গেছেন। ২ উইকেট নিয়েছেন অক্ষর প্যাটেল। অশ্বিনও উইকেট নিয়ে নিজের মূল কাজটা এরই মধ্যে শুরু করে দিয়েছেন তৃতীয় দিন বিকেলেই।

হাতে ৭ উইকেট নিয়ে করতে হবে আরও ৪২৯ রান। কাজটা প্রচণ্ড কঠিন। তবে লড়াইটা করতে জো রুট আর বেন স্টোকসকে যে বড় অবদান রাখতে হবে, সেটা জানা কথাই। এই দুজন খেলতে পারলেই যে কেবল কিছুটা আশা থাকে ইংলিশদের।