সোমবার, ২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কেদারকন্ঠ পাহাড় চূড়ায় দুঃস্থ শিশুদের শিক্ষাসামগ্রী প্রদান করলেন সুন্দরবনের যুবক

News Sundarban.com :
ডিসেম্বর ৩১, ২০২০
news-image

নিউজ সুন্দরবন ডেস্ক: এ এক অনন্য বিরল দৃষ্টান্তের নজীর।কেদারকন্ঠ পাহাড় চূড়ায় শঙ্করী নামক একটি গ্রামের প্রায় ৬০ জন দুঃস্থ শিশুদের হাতে শিক্ষা সামগ্রী প্রদান করলেন সুন্দরবনের যুবক অনুরাগ নায়েক।আরোহীদের কাছ থেকে আচমকা এমন উপহার সামগ্রী পেয়ে খুশি পাহাড়ি শিশু সহ তাদের পরিবার পরিজনেরা।

সোনারপুর আরোহী কর্তৃক কেদারকন্ঠ পাহাড় চূড়ায় চড়ার জন্য ৮ জনের একটি দল রওনা দিয়েছিলেন গত ১৮ ডিসেম্বর।সেই দলেই ছিলেন প্রত্যন্ত সুন্দরবনের বাসন্তী ব্লকের শিবগঞ্জের যুবক অনুরাগ নায়েক।কেদারকন্ঠের একটি গ্রামের অসহায় শিশুদের করুণ দুর্দশার কথা তিনি উপলব্দ্ধি করেন। পাহাড়ে চড়া কালীন শিশুদের সাহায্য করার ইচ্ছা থাকলেও তা সম্ভবপর হয়ে ওঠেনি।

বরফের দেশে এই ৮ জনের দল পাঁচ দিন কাটায়।পরে সুন্দরবনের যুবক অনুরাগ নায়েক কেদারকন্ঠের চূড়ায় শঙ্করী নামক গ্রামের প্রায় ৬০ জন অসহায় দুঃস্থ স্কুল পড়ুয়া শিশুদের হাতে পর্যাপ্ত পরিমাণ প্রয়োজনীয় শিক্ষা সামগ্রী তুলে দেয়।আর এমন মানবিক কাজে সহযোগিতা করেন অনুরাগের অন্যান্য বন্ধুবান্ধবরা।

সুন্দরবনের এই যুবক মঙ্গলবার রাতেই গ্রামের বাড়িতে ফিরেছেন। পাহাড় চূড়ায় উঠতে গিয়ে কেন এমন উদ্যোগ জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান “আমার বাবা অমল নায়েক প্রত্যন্ত সুন্দরবনের বাসন্তী ব্লকের একটি হাইস্কুলের শিক্ষক। শিক্ষকতার পাশাপাশি তিনি বিভিন্ন সমাজসেবা মূলক কাজে আত্মনিয়োগ করে কাজ করে চলেছেন। বাবার সেই আদর্শে আমি অনুপ্রাণিত হয়েছি।

ভেবে ছিলাম জীবনের শুরুটা ভালো করে করতে হবে। তাই কেদারকন্ঠ পাহাড় সম্পর্কে অনেক আগেই খোঁজ খবর নিয়েছিলাম। যার জন্য কেদারকন্ঠে যাওয়ার আগেই আমি এই প্রস্তুতিপর্ব নিয়েছিলাম।সেখানে ৬০ জন দুঃস্থ স্কুল পড়ুয়ার হাতে শিক্ষা সামগ্রী তুলে দিয়েছি। আগামী দিনেও সমাজের বিভিন্ন স্তরে এমন কাজ করে যেতে চাই। ”