বৃহস্পতিবার, ৭ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

পিছিয়েপড়া উত্তপ্ত বাসন্তী ব্লকের মানুষের পাশে,মানুষের সাথে বারুইপুর পুলিশ জেলার পুলিশ

News Sundarban.com :
ডিসেম্বর ১, ২০২০
news-image

নিউজ সুন্দরবন ডেক্স: নদীনালা বেষ্টিত সুন্দরবন। আর সুন্দরবনের অন্যতম পিছিয়ে পড়া ব্লক বাসন্তী। এই বাসন্তী ব্লকে অধিকাংশ সংখ্যালঘু সম্প্রদায় ও তপশিলী জাতি ও উপজাতির বসবাস।এলাকার অসহায় মানুষের উন্নয়নের কথা তুলে ধরে,বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল বাসন্তী ব্লকের সাধারণ মানুষ কে সামনে রেখে রাজনীতি করেছেন।অসহায় সাধারণ মানুষের কথা কেউ চিন্তা করেননি। যারজন্য আজও পিছিয়ে রয়েছে সুন্দরবনের এই বাসন্তী ব্লক।

রাজনৈতিক নেতারা নিজেদের স্বার্থসিদ্ধির জন্য বাসন্তীতে বোমাগুলির লড়াই চালিয়ে জারি রেখে তপ্ত করে রেখেছিলেন দীর্ঘদিন। যেখানে সকালে পূব আখশকাশে সূর্যোদয় হয় হিংসা মারামারীতে। শিশুর ঘুম ভাঙে বোমা-গুলির আওয়াজে।এমনই ভাবে দিনের পর দিন রাজনৈতিক হিংসায় জর্জরিত হয়ে ওঠে। বিভিন্ন সময়ে এই হিংসায় বলি হয় সাধারণ মানুষ। এমনকি রাজনৈতিক হিংসার উত্তপ্ত পারদ এতো বেশি যে গৃহপালিত পশুকেও গুলিতে হত্যা করা হয়েছে।এমনই পরিস্থিতিতে বাসন্তী কে স্বান্ত করার আহ্বান জানানো হলেও তা সম্ভবপর হয়নি। হয়নি রাজনৈতিক নেতাদের কোন্দলে। এমনই পরিস্থিতি মানুষের সাথে এবং মানুষের পাশে থাকার আহ্বান জানিয়ে বাসন্তী ব্লক কে স্বান্ত করার প্রক্রিয়া শুরু করে বারুইপুর পুলিশ জেলার পুলিশ প্রশাসন। ওসি’র পরিবর্তে বাসন্তী থানা কে আইসি মর্যাদায় উন্নিত হয়। দ্বায়িত্ব ভার গ্রহণ করেন আব্দুর রব খান। কোন প্রকার রাজনৈতিক রঙ না দেখে সাধারণ মানুষের কাজে ব্রতী হন তিনি। বাসন্তীতে শান্তি ফেরানো উদ্যোগ নিয়ে এলাকায় একের পর এক দুষ্কৃতিকে ধরে গারদে পাঠায়।পাশাপাশি এলাকা থেকে মজুত করা বেআইনি বোমা,গুলি সহ আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করেন আইসি আব্দুর রব খান।

অন্যদিকে সাধারণ মানুষের সাথে এবং পাশে পুলিশ প্রশাসন রয়েছে। রয়েছে বারুইপুর পুলিশ জেলার পুলিশ।প্রতি বছরই বিজয়া সম্মিলনী অনুষ্ঠিত হয় বাসন্তী সহ বারুইপুর পুলিশ জেলার অধিনস্ত অন্যান্য থানায়।অনুষ্ঠিত হয় নানান ধরনের বিচিত্রানুষ্ঠান। সেই সমস্ত বিচিত্রানুষ্ঠান বাতিল করেন বাসন্তী থানার আইসি আব্দুর রব খান।সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ালেন বারুইপুর পুলিশ জেলার উদ্যোগে।সোমবার সন্ধ্যায় বাসন্তী থানার মাঠে অনুষ্ঠিত হল এক মনোজ্ঞ অনুষ্ঠান।সাধারণ মানুষের সাথে এবং পাশে থাকার আহ্বান জানিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হয় ভূপেন হাজারিকার বিখ্যাত গান “মানুষ মানুষের জন্য’ গেয়ে।

অনুষ্ঠানে বিশিষ্টদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বারুইপুর জেলার পুলিশের পুলিশ সুপার কামনাশীষ সেন,অতিরিক্ত পুলিশসুপার ইন্দ্রজিত বসু,ক্যানিং মহকুমা পুলিশ আধিকারিক গোবিন্দ শিকদার,বাসন্তী থানার আইসি আব্দুর রব খান,বিধায়ক গোবিন্দ চন্দ্র নস্কর,জেলা পরিষদ সদস্যা তথা শিক্ষিকা শঙ্করী মন্ডল,স্থানীয় পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি কামালউদ্দিন লস্কর,প্রাক্তন শিক্ষক তথা বিশিষ্ট প্রাবন্ধিক প্রভুদান হালদার,কান্তিলাল দেবনাথ সহ অন্যান্যরা। এদিন বাসন্তী থানার অনুষ্টান মঞ্চ থেকে এলাকার তিনজন কৃতি ছাত্র কে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। পাশাপাশি ১২৫ জন দুঃস্থকে বস্ত্র,২০০ জন কে শীতের কম্বল,তিনজন প্রতিবন্ধী কে গাড়ি এবং প্রায় শতাধিক দুঃস্থ ছাত্রছাত্রীদের কে পড়াশোনার সামগ্রী দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠান শেষে বারুইপুর জেলার পুলিশের সুপার কামনাশীষ সেন বলেন “পুলিশ কারোর শত্রু নয়। মানুষের বন্ধু। সাধারণ মানুষের পাশে সদাসর্বদা পুলিশ প্রশাসন রয়েছে। আগামী দিনেও এমন কর্মযঞ্জের মধ্যদিয়ে সাধারণ মানুষের সাথে এবং পাশে থাকবে পুলিশ প্রশাসন। ”
হিংসায় উত্তপ্ত বাসন্তী কে স্বান্ত্ব করে সাধারণ মানুষের পাশে পুলিশ প্রশাসন থাকায় বাসন্তী ব্লকের সর্বস্তরের মানুষজন বারুইপুর পুলিশ জেলার পুলিশ ও বাসন্তী থানার আইসি’র এমন উদ্যোগ কে সাধুবাদ জানিয়েছেন।