বৃহস্পতিবার, ৭ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী এবছর রবীন্দ্র সরোবরে ছটপুজো করা যাবে না

News Sundarban.com :
নভেম্বর ২০, ২০২০
news-image

নিউজ সুন্দরবন ডেক্স:  ছটপুজো উপলক্ষে শুক্রবার রবীন্দ্র সরোবর পার্ক পুরোপুরিভাবেই পুলিশ দিয়ে ঘিরে ফেলা হয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী এবছর রবীন্দ্র সরোবরে ছটপুজো করা যাবে না। এদিন সকাল থেকেই রবীন্দ্র সরোবরের চারদিকে বাঁশ এবং টিন দিয়ে সমস্ত গেট বন্ধ রাখা হয়েছে। পুরো রবীন্দ্র সরোবর পার্ক চত্বরে পুলিশ দিয়ে ঘিরে ফেলা হয়েছে, যেন কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে।

প্রসঙ্গত জাতীয় সরোবরের তকমা পাওয়া রবীন্দ্র সরোবরে ছটপুজোর অনুমতি দেয়নি সুপ্রিম কোর্ট। কলকাতা হাইকোর্ট ও জাতীয় পরিবেশ আদালতের রায়ে কোনও স্থগিতাদেশ বা সংশোধনের পথে হাঁটেনি সুপ্রিম কোর্টের তিন বিচারপতির নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ। ফলে শুক্রবার রবীন্দ্র সরোবর বা সুভাষ সরোবরে ছটপুজো হবে না এবছর। বিধিনিষেধ মেনে কেএমডিএ ছটপুজোর আবেদন জানিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিল। কিন্তু আবেদন খারিজ হয় সেখানেও। এরপর এই দুই আদালতের রায়ের বিরোধিতায় সুপ্রিম কোর্টে আপিল করে কেএমডিএ।

যে বেঞ্চে শুনানি হওয়ার কথা ১৬ তারিখ, সেখানে শুনানি না হয়ে অন্য বেঞ্চে শুনানিতে সরোবরে ছটপুজোর কোনও অনুমতি দেওয়া হয়নি। পরবর্তী দিন ধার্য করা হয়েছিল ২৩ তারিখ। কিন্তু ২০ তারিখ ছটপুজো। তাই ২৩ তারিখ শুনানি হলে, কোনও লাভ হবে না। এই যুক্তিতে কেএমডিএ জরুরি ভিত্তিতে শুনানির আবেদন করে। সেইমতো বৃহস্পতিবার তিন বিচারপতির বেঞ্চে শুনানি হয়। কিন্তু একই রায় বহাল রাখে শীর্ষ আদালত। হাই কোর্ট এবং জাতীয় পরিবেশ আদালতের রায়ে কোনও সংশোধন হবে না বলে জানিয়ে দেন তিন বিচারপতি।
তবে, শহরের ১৬ টি জলাশয়ে ৪৪টি কৃত্রিম ঘাট তৈরি করেছে কেএমডিএ। অন্যদিকে, পুরসভাও ৪৮ টা কৃত্রিম ঘাট এবং ত্রিধারা মডেলে কৃত্রিম পুকুর তৈরি করেছে। এছাড়া গঙ্গার তীরে আরও ৪০ টি অস্থায়ী ঘাট তৈরি করা হয়েছে। তবে সুপ্রিমকোর্টের এই রায়া খুশি পরিবেশবিদরা। তাঁরা চান রবীন্দ্র সরোবরকে পরিবেশ দূষণের হাত থেকে বাঁচানো হোক।