শুক্রবার, ১৪ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সাড়ে চারকাঠা সম্পত্তি নিয়ে পারিবারিক বিবাদ, ২ মহিলা সহ জখম ৫

News Sundarban.com :
নভেম্বর ১৯, ২০২০
news-image

নিউজ সুন্দরবন ডেক্স: মাত্র সাড়ে চারকাঠা সম্পত্তি নিয়ে পারিবারিক বিবাদ চলে আসছে দীর্ঘ প্রায় চার বছর যাবৎ। মাঝে মধ্যে দুই পরিবার বচসা এবং চরম বিবাদেও জড়িয়ে পড়েন। বৃহষ্পতিবার ও দুই পরিবারে মধ্যে সামান্য বচসা শুরু হলে পরে ব্যাপক মারামারি হয়। আর এই মারামারিতে একই পরিবারের দুই মহিলা সহ ৫ জন গুরুতর জখম হয়।স্থানীয় প্রতিবেশীরা আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যায়। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহষ্পতিবার সকালে দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলার ক্যানিং থানার মাতলা ১ গ্রাম পঞ্চায়েতের খাসকুমড়োখালি গ্রামে।
স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে,দীর্ঘ প্রায় ৪ বছর ধরে সাড়ে চার কাঠা জমি নিয়ে গন্ডগোল চলছিল ক্যানিংয়ের খাস কুমড়োখালির মোল্লা পরিবারের মধ্যে।

এদিন সকালে আচমকা সেই সাড়ে চারকাঠা সম্পত্তির বাগানে ভাঙা কাঁচের টুকরো এবং নোংরা আবর্জনা ফেলেছিল ছাত্তার ও শরিফুল মোল্লার পরিবারের লোকজন।বাগানের মধ্যে কেন নোংরা আবর্জনা ও ভাঙা কাঁচের টুকরো ফেলা হয়েছে তা প্রতিবাদ করে জানতে বাগানে যায় জালাল ও হাকিম মোল্লারা।

অভিযোগ প্রতিবাদ করে জানতে চাওয়ায় জালাল ও হাকিম কে বেধড়ক মারেধোর শুরু করে ছাত্তার,শরিফুল, সিদ্দিক ও রফিকুল মোল্লারা।জালাল ও হাকিমের চিৎকারে ছুটে আসে তাদের পরিবারের সদস্য রমজান মোল্লা,সাবিনা মোল্লা ও খাতিজা মোল্লারা। মারধোরে হাত থেকে তাদের কে উদ্ধার করতে যায়। অভিযোগ সেই সময় ছাত্তার,শরিফুল, সিদ্দিক,রফিকুলরা তাদের কে লাঠি,শাবল,দা এবং বঁটি নিয়ে চড়াও হয়ে বেধড়ক মারধোর করে।

ঘটনায় দুই মহিলা সহ একই পরিবারে পাঁচজন গুরতর জখম হয়।সাত সকালে প্রতিবেশীরা মোল্লা পরিবারে এমন কান্ডকারখানা দেখে দৌড়ে আসেন।পালিয়ে যায় অভিযুক্তরা।এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। প্রতিবেশীরা রক্তাক্ত অবস্থায় পাঁচজন কে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যায়। আহতদের মধ্যে দুই মহিলা তিনজনের অবস্থা আশাঙ্কাজনক। এবিষয়ে জালাল মোল্লা ক্যানিং থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে ক্যানিং থানার পুলিশ।