সোমবার, ২৩শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

সংসদে পাশ করানো শ্রমিক কৃষক স্বার্থ বিরোধী আইনগুলি প্রত্যাহারের দাবীতে বাঁকুড়ায় বিক্ষোভ

News Sundarban.com :
সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২০
news-image

মৌসুমী চ্যাটার্জী,  বাঁকুড়া:

কর্পোরেটদের স্বার্থে পাল্টে ফেলা হয়েছে শ্রম আইনগুলির খোলনলচে – তাদের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে অবাধ ছাঁটাই তথা লুঠের ব্যাবস্থা। জলের দরে তাদের হাতেই তুলে দেওয়া হচ্ছে ব্যাংক, বিমা, রেল, কয়লাখন, প্রতিরক্ষা শিল্প, বিদ্যুত, বিমানপোত ও বিমান পরিবহনসহ সমগ্র রাষ্ট্রায়ত্ত ক্ষেত্র। একইভাবে কৃষিক্ষেত্রেও নতুন আইন এনে কৃষিক্ষেত্রকেও কর্পোরেটদের হাতে তুলে দিয়ে কৃষকদের নিঃস্ব করে দেওয়ার পাশাপাশি এমনিতেই ধুঁকতে থাকা দেশের অর্থনীতিকেও ঠেলে দেওয়া হচ্ছে ধ্বংসের দিকে। বিরোধী মতের কন্ঠ রোধ করা এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়া নিয়ে সংশয় থাকায় জবরদস্তি করে আইনগুলি পাশ করাতে রাজ্যসভার অধিবেশনে মার্শালদের দিয়ে বিরোধী সদস্যদের মারধোর করে জখম করতেও দ্বিধা করেনি। এমনকি শ্রমিকদের সামাজিক নিরাপত্তা ও পরিযায়ী শ্রমিকদের পক্ষে যে আইনবিধিগুলি ছিলো সেগুলিও বাতিল করে দেওয়া হয়েছে।

– এর বিরুদ্ধে আহুত দেশজুড়ে প্রতিবাদ দিবসে আজ বাঁকুড়া শহরেও মিছিল ও বিক্ষোভে সামিল হলেন শত শত শ্রমজীবী মানুষ। পোড়ানো হলো বিজেপি সরকার আরোপিত শ্রমিক কৃষক স্বার্থ বিরোধী আইননের প্রতিলিপিও। মিছিলকারীরা বেশ কিছুটা সময় দখল নিয়েও ফেলেছিল শহরের প্রাণকেন্দ্র মাচানতলা মোড়। বিক্ষোভ শেষে সিআইটিইউ নেতা কিংকর পোষাকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হওয়া প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন প্রতীপ মুখার্জী(সিআইটিইউ), বাবলু ব্যানার্জী(এআইসিসিটিইউ), প্রণব মুখার্জি(১২ই জুলাই কমিটি), পবন সেলামপুরিয়া (আইএনটিইউসি), ভাস্কর সিনহা (এআইটিইউসি) ও অনাথ মল্ল(টিইউসিসি)।
– “শ্রমিক কৃষক তথা দেশের স্বার্থবিরোধী জবরদস্তি করে লাগু করা আইনগুলি জ্বালিয়ে দাও পুড়িয়ে দাও” – শ্লোগানের গর্জনের মধ্যেই আইনগুলির প্রতিলিপিগুলিতে অগ্নিসংযোগ করেন ইউটিইউসি নেতা গঙ্গা গোস্বামী। – পথচলতি অনেক মানুষও মুষ্টিবদ্ধ হাতে এই কর্মসূচীর প্রতি সহমর্মিতা জানান।