বুধবার, ৬ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

মৌসুনি দ্বীপ এর বন্যাদুর্গতদের ত্রিপুল দিলেন নামখানা ব্লক কংগ্রেস

News Sundarban.com :
আগস্ট ২৫, ২০২০
news-image

ঝোটন রয়, মৌসুনি:

মৌসুনি দ্বীপ এর বন্যাদুর্গতদের ত্রিপুল দিলেন নামখানা ব্লক কংগ্রেস। নামখানা ব্লকের মৌসুমী দ্বীপের জোয়ারের জল ঢুকে যেভাবে মানুষজন বন্যার সম্মুখীন হয়েছেন তা বলার অপেক্ষা রাখে না।
এই ভয়াবহ বন্যার পরিস্থিতি চাক্ষুষ দেখলেন ব্লক কংগ্রেসের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তারক মাইতি। তিনি বলেন, নোনা জলে ডুবে রয়েছে মাটির বাড়ি গুলো। আস্তে আস্তে করে ধসে পড়ছে বাড়িগুলোর দেওয়াল। যারা দিন আনে দিন খায় সেই সব মানুষদের চোখে মুখে আতঙ্কের ছাপ। ভাবতেই পারছিনা, আজ আমরা ভালো আছি। কিন্তু ওরা ভালো নাই। অনেকে আবার পেটে খাবার জুটে না। কারণ সব সর্বস্বান্ত হয়ে গেছে নোনা জলে‌। যেটুকু বাড়ির মধ্যে সঞ্চয় ছিল সেও চলে গেল ‌। এখন ওদের দরকার বাসস্থান আর খাবার‌।
তিনি আরো বলেন, মৌসুমী পয়লা ঘেরি এক হাজারের বেশি বসতি আজ নোনা জলে ডুবে রয়েছে। আমাদের সাধ্যমত আমরা মানুষকে ত্রিপুল দিয়ে সাহায্য করেছি। আমরা আগামী দিনে আরো কিছু মানুষকে সাহায্য করবো।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন স্থানীয় বাসিন্দা বলেন, আমাদের এই অসুবিধাতে কংগ্রেসের প্রতিনিধি এসে আমাদের পাশে দাঁড়িয়েছেন তা ওনাকে বলার কোনো ভাষা নেই। বর্তমান সরকারের কেউ আসেনি। আমরা মরে গেছি, কি বেঁচে আছি, আমরা কি খাচ্ছি, কারো দেখার কোনো প্রয়োজন নেই। চোখেমুখে প্রতিবাদের ভাষা দিয়ে বুঝিয়ে দিলেন তিনি।

এই প্রসঙ্গে নামখানা ব্লক কংগ্রেসের সভাপতি প্রতুল সামন্ত বলেন, অনেকদিন ধরেই মৌসুমী নদী বাঁধের অবস্থা খুবই খারাপ ছিল উপরে জানানো সত্ত্বেও তারা কোনও কাজ করেননি। প্রতিবারে জানিয়েছেন
শুকনো অবস্থায় নদীবাধেঁর কাজ হবে। এই আশ্বাসে সুন্দরবন বাসি ছিলেন। সেই আশ্বাস আজ তাদের কাছে এক আতঙ্ক। আম্ফান ঝড়ে বাঁধের অবস্থা খুবই খারাপ ছিল। সে গুলোকে পুনর নির্মাণ করার কোনো কাজ করেননি। এই ভরা কোটালে যেভাবে নদীর জোয়ারের জল প্লাবিত হয়েছে। তাতে তিনটি এলাকা নদীর জলে।

এই অবস্থাতে বেশ কয়েকজন বন্যা দুর্গত মানুষদেরকে আমরা ত্রিপুল দিয়েছি। এবং আগামী দিনে আরো দেবো।

ত্রিপুল পেয়ে খুশি মানুষজন।