মঙ্গলবার, ৯ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

খেলোয়াড় কেনায় হাজার হাজার কোটি টাকা লগ্নি করেছে পিএসজি

News Sundarban.com :
আগস্ট ১৮, ২০২০
news-image

নেইমার থেকে কিলিয়ান এমবাপ্পে—পিএসজির পুরো দলের মূল্য আসলে কত? এমন প্রশ্ন ফুটবলপ্রেমীদের মাথায় সব সময়ই ঘোরে। ফরাসি লিগ ওয়ানে কয়েক বছর ধরে ‘দাদাগিরি’ করা পিএসজি লিগ জিতেছে নয়বার। ২০১৮ থেকে ২০২০—এই তিন বছরে টানা তিনবার লিগ জিতেছে দলটি। জিতবে না–ই বা কেন, এই তিন বছরে যে খেলোয়াড় কেনায় হাজার হাজার কোটি টাকা লগ্নি করেছে পিএসজি।

নেইমার, কিলিয়ান এমবাপ্পের মতো খেলোয়াড় এই সময়ের মধ্যেই কিনেছে প্যারিসের ক্লাবটি। ২০১৭ সালে বার্সেলোনা থেকে নেইমারকে উড়িয়ে এনেছে রেকর্ড ২২ কোটি ২০ লাখ ইউরো ট্রান্সফার ফিতে। পরের বছর মোনাকো থেকে এমবাপ্পেকে পেতে খরচ করেছে প্রায় ১৫ কোটি ইউরো। সব মিলিয়ে দলবদলের বাজারের মোগল তাদের বলাই যায়। চলতি ২০১৯-২০ মৌসুমে পিএসজির পুরো দলের মূল্য ৭৭ কোটি ৯৪ লাখ ইউরো। বাংলাদেশি মুদ্রায় যেটি ৭ হাজার ৮৩০ কোটি ৬০ লাখ টাকার বেশি।

এটা মূলত দলটির খেলোয়াড়দের পরিমাণ। নেইমার ও এমবাপ্পে—বিশ্বের সর্বোচ্চ ও দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ট্রান্সফারের দুজন খেলোয়াড়ও এই দলেই। নেইমার ন্যু ক্যাম্প থেকে প্যারিসে যেতে ভেঙে চুরমার করে দিয়েছেন পল পগবার ১০ কোটি ৫০ লাখ ও গ্যারেথ বেলের ১০ কোটি ৮ লাখ ইউরোর ট্রান্সফার ফির রেকর্ড। ২০১৬ সালে জুভেন্টাস থেকে ফরাসি মিডফিল্ডার পগবাকে পেতে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড খরচ করেছিল ১০ কোটি ৫০ লাখ ইউরো। আর বেল ১০ কোটি ৮ লাখ ইউরো ট্রান্সফার ফিতে টটেনহাম থেকে রিয়াল মাদ্রিদে গিয়েছিলেন ২০১৩ সালে। দুটিই ছিল সেই সময়কার রেকর্ড।

শুধু নেইমার বা এমবাপ্পেই নন, পিএসজির আরও অনেক ট্রান্সফার আছে বিশাল অঙ্কের। এই যেমন অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়াকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড থেকে নিয়ে আসতে পিএসজি খরচ করেছে ৬ কোটি ৩০ লাখ ইউরো। আর ইন্টার থেকে মাউরো ইকার্দিকে এনেছে ৫ কোটি ইউরোতে।