বুধবার, ২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কলকাতায় সংক্রমণ কমবে ১৫ অগাস্টের পর, আজব দাবি শান্তনুর

News Sundarban.com :
আগস্ট ৬, ২০২০
news-image

নিউজ সুন্দরবন ডেস্ক:  প্রায় প্রত্যেক দিনই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। আক্রান্তের উর্ধ্বসীমার নিরিখে দেশ তথা রাজ্যের চিত্রটা প্রথম থেকেই সর্বাধিক। এই অবস্থায় কলকাতায় করোনা পরিস্থিতি স্থিতিশীল বলে দাবি করলো কলকাতা পুর নিগম। শুধু তাই নয়, ১৫ অগাস্টের পর থেকে কলকাতায় করোনা সংক্রমণের হারও ধীরে ধীরে কমে যাবে বলেও এদিন দাবি করেন কলকাতা পুর নিগমেরর করোনা উপদেষ্টা শান্তনু সেন।

কলকাতায় করোনা পরিস্থিতি প্রসঙ্গে কলকাতা পুর নিগমেরর প্রশাসনিক বোর্ডের স্বাস্থ্য বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত অতীন ঘোষের দাবি, কলকাতায় অন্তত ৭০ শতাংশ করোনা আক্রান্ত উপসর্গহীন। এই রিপোর্টের ভিত্তিতে কলকাতা পুর নিগমেরর করোনা উপদেষ্টা শান্তনু সেনের দাবি, ‘উপসর্গহীনরাই শরীরে করোনার প্রতিরোধক্ষমতা গড়ে তুলবে। যার ফলে ১৫ অগাস্টের পর থেকে ধীরে ধীরে কমবে সংক্রমণের হার।’ যদিও সংক্রমণের হার কমার জন্য ১৫ অগাস্ট এর পরের সময়কেই কেন বেছে নেওয়া হয়েছে, সে বিষয়ে কোনও স্পষ্ট ব্যাখ্যা পাওয়া যায়নি তাঁর কাছে।
অন্যদিকে, দু’দিন আগেই ‘দুর্গাপূজার আনন্দই ইমিউনিটি বুষ্টিং করবে’ বলে দাবি করেছিলেন অতীন ঘোষ। এমনকি ‘মায়ের আশীর্বাদেই’ করোনা প্রতিরোধ করা যাবে বলেও আশা প্রকাশ করেছিলেন তিনি। যদিও পরবর্তীকালে নিজের বক্তব্য শুধরে নেন অতীনবাবু। শুধুমাত্র মজার ছলেই একথা বলেছিলেন বলে জানান তিনি।তবে পুর নিগমেরর আশঙ্কা বাড়িয়েছে অন্য প্রবণতা। পুর নিগমেরর আধিকারিকদের দাবি, অধিকাংশ ক্ষেত্রে সামান্য উপসর্গ থাকলে মানুষ করোনা পরীক্ষা করাচ্ছেন না। নিজেরাই ওষুধ খেয়ে সুস্থ হয়ে উঠছেন। কিন্তু কারও পরিস্থিতি জটিল হয়ে উঠলে সামাল দেওয়া মুশকিল হচ্ছে। এদিকে গত সপ্তাহে ফিরহাদ হাকিমের ওয়ার্ডে যে অ্যান্টিজেন পরীক্ষা হয়েছিল, তাতে ১০০ জনের মধ্যে ১৯ জনের দেহে সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এর মধ্যে ১৬ জনই উপসর্গহীন।