বুধবার, ২৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ফের সংক্রমণের রেকর্ড ভাঙল করোনা, উদ্বেগের কিছু দেখছে না নবান্ন

News Sundarban.com :
জুলাই ১৫, ২০২০
news-image

নিউজ সুন্দরবন ডেস্ক:  পরপর সংক্রমণের রেকর্ড ভাঙছে রাজ্য। যদিও গত দুদিনে তা সামান্য কম হতে দেখা গিয়েছে। গত চব্বিশ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে রেকর্ড সংখ্যক আরও ১,৩৯০ জন নভেল করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন। রাজ্যে করোনা সংক্রমিতের মোট সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৩২ হাজার ৮৩৮। অন্যদিকে, এই সময়ে আরও ২৪ জন করোনা আক্রান্তের মৃত্যু হয়েছে বলে আজ সন্ধ্যায় স্বাস্থ্য দপ্তরের প্রকাশিত রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে। ফলে এই নিয়ে রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে হল ৯৮০। যার মধ্যে ৫১৬ জন কলকাতার বাসিন্দা।এরই মধ্যে এদিন নবান্নের তরফে রাজ্যের পরিস্থিতি উদ্বেগজনক নয় বলে ঘোষণা করায় বিতর্ক দানা বেঁধেছে।

বর্তমানে ১১ হাজার ৯২৭ জন করোনা আক্রান্ত রোগী রাজ্যের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এই সময় আরও ৭১৮ জন রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গিয়েছেন। ফলে মোট ১৯ হাজার ৯৩১ জন রোগী আরোগ্য লাভ করলেন। পাশাপাশি আগের তুলনায় আরোগ্যের হারও কমেছে। সুস্থতার হার কদিন আগেও ৬৬ শতাংশ ছিল। যা এখন কমে হয়েছে ৬০.৬৯ শতাংশ। গত ২৪ ঘন্টায় ১১ হাজার ১০২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এই নিয়ে রাজ্যে এখনও পর্যন্ত মোট ৬ লাখ ৩৮ হাজার ৫৪০ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হল।

প্রসঙ্গত, রাজ্যে বাড়তে থাকা করোনা পরিস্থিতিতে লাগাম টানতে সম্প্রতি কন্টেনমেন্ট জোনগুলিতে লকডাউন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার প্রশাসনের তরফ থেকে কলকাতা ও উত্তর ২৪ পরগনার কনটেইনমেন্ট জোনের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার বিকেল পাঁচটার পর থেকে সেই জায়গাগুলিতে জারি হয়েছে লকডাউন। তবে পরিস্থিতির বিশেষ উন্নতি হতে দেখা যাচ্ছে না।

এদিকে এরাজ্যে করোনা পরিস্থিতি এখনও আশঙ্কাজনক নয় বলে রাজ্য সরকাররের তরফে এদিন দাবি করা হয়েছে। সংক্রমমের নিরিখে সারা দেশের তুলনায় এ রাজ্যের অবস্থান এখনো ভালো বলে রাজ্যের স্বরাষ্ট্র দফতরের দাবি । এদিন স্বরাষ্ট্র দফতরের টুইটার হ্যান্ডেলে য় পরিসংখ্যান উল্লেখ করে দাবি করা হয়েছে গত এপ্রিল মাসের মাঝামাঝি সারাদেশের মধ্যে এরাজ্যে করোনা সংক্রমণের হার ছিল ২.৩২ শতাংশ। গত রবিবারের হিসাবে তা বেড়ে হয়েছে ৩.৪২ শতাংশ।এই সময় সারা ভারতের সংক্রমণের সংখ্যা যেখানে প্রায় ৯ লক্ষ ছুঁতে চলেছে সেখানে এরাজ্যে সংক্রমণ এখনও ৩০ হাজারের কাছাকাছি।