শুক্রবার, ২১শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ব্যাংকের কর্মীর কপালে আগ্নেয়াস্ত্র ঠেকিয়ে টাকা লুট,ধৃত দুষ্কৃতীরা

News Sundarban.com :
এপ্রিল ১৮, ২০২০
news-image

সাহিল আনোয়ার, ঢোলা হাট :

দিন দুপুরে ঢোলাহাট স্টেট ব্যাংকের এক শাখা কর্মীর গাড়ি দাঁড় করিয়ে কপালে আগ্নেয়াস্ত্র ঠেকিয়ে ব্যাংক থেকে তোলা সাড়ে চার লক্ষ টাকা লুঠ করল দুষ্কৃতীরা। প্রকাশ্য রাস্তায় এই ছিনতাইয়ের ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। শুক্রবার বেলা ১১ টা নাগাদ ঘটনাটি ঘটে ঢোলাহাট থানার জামালপুর মোড় ও পাথর বেড়িয়ার মাঝে। শেষে পুলিশী তৎপরতায় আগ্নেয়াস্ত্র সমেত ধরা হয় চুনফুলির বাসিন্দা জাহির উদ্দিন মোল্লা (৪২), দৌলত পুরের বাসিন্দা আসাদুল হালদার (৪৫), চুন ফুলির বাসিন্দা সালাউদ্দিন শাহ (৪০) নামে ওই তিন দুষ্কৃতীকে। উদ্ধার হয়েছে লুঠ হয়ে যাওয়া নগদ টাকা। সূত্রের খবর, শুক্রবার আনুমানিক সকাল ১১ টা নাগাদ ঢোলাহাট স্টেট ব্যাংকের শাখা কর্মী বীরেশ্বর হালদার স্টেট ব্যাংক থেকে সাড়ে চার লক্ষ টাকা তুলে মোটরবাইক করে তার সিদ্ধি বেড়িয়ার শাখা অফিসে যাচ্ছিলেন। পথে জামালপুর অতিক্রম করার পর চারজন দুষ্কৃতী তার পথ আটকায়। কপালে আগ্নেয়াস্ত্র ঠেকিয়ে তার সঙ্গে থাকা টাকার ব্যাগটি লুঠ করে নিয়ে চলে যায়। ঘটনাস্থল থেকে ঢোলাহাট থানা দূরত্ব মাত্র ২ কিলোমিটার মত। শাখা কর্মী বীরেশ্বর সঙ্গে সঙ্গেই চলে আসে ঢোলাহাট থানায়। টাকা লুঠের ঘটনার খবর পেয়ে ঢোলাহাট থানা তৎপর হয়ে ওঠে। ঢোলাহাট থানার পুলিশ আধিকারিক অজয় চন্দ্র সঙ্গে সঙ্গে পাথর বেড়িয়ার মোড়ে থাকা সিভিক, ভিলেজ ও পুলিশকর্মীদের ওই এলাকা ঘিরে ফেলার নির্দেশ দেন। ঘিরে ফেলা হয় পুরো এলাকা। ইতিমধ্যেই পৌঁছে যান ঢোলাহাট থানার পুলিশ আধিকারিকরা। চলে চিরুনি তল্লাশি। পুলিশি অভিযানের গন্ধ পেয়ে লুটেরা একটা ঘরের মধ্যে ঢুকে পড়ে। পুলিশ সেই বাড়িটাকে ঘিরে ফেলে। পুলিশকে দেখে গুলি চালানোর চেষ্টা করে দুষ্কৃতীরা। পরে পুলিশি তৎপরতায় ধরে ফেলা হয় তিন ওই দুষ্কৃতীকে।