সোমবার, ১৫ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

দুঃস্থদের ত্রাণ দিয়ে ২৫ তম বিবাহ বার্ষিকী পালন

News Sundarban.com :
এপ্রিল ১৮, ২০২০
news-image

ক্যানিং -নাম স্বপ্না দাস। ক্যানিং ১ পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যা।শনিবার সকালে স্বপ্নাদেবী সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে প্রায় চারশো দুঃস্থ পরিবারের হাতে ত্রাণ তুলে দিয়ে তাঁর ২৫ তম বিবাহ বার্ষিকী পালন করলেন এক ভিন্নভাবে।

উল্লেখ্য করোনা নিয়ে রাজ্য তথা দেশে চলছে এক অসহ্য ভয়াবহ মহামারীর যন্ত্রণা। সেই মহামারী যন্ত্রণা থেকে মুক্তি দিতেই কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার করোনার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলে তুমুল লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে। যদিও করোনা দফায় দফায় তার সংক্রমণ বেগ বাড়িয়ে চলেছে। আর এই সংক্রমণ বেগ বেড়ে যাওয়ায় করোনা ভাইরাসে সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে চলেছে।আর আতঙ্কও যেন পিছু ছাড়ছে না।
এমনই সংকটময় মুহূর্তে নিজের ২৫ তম বিবাহ বার্ষিকী রাজকীয় পরিবেশে পালন না করে দুঃস্থ ও অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে ত্রাণ তুলে দিয়ে বিবাহ বার্ষিকী পালন করলেন ক্যানিং ১ পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যা স্বপ্না দাস।শনিবার সকালে ক্যানিং ১ ব্লকের কুমারশা গ্রাম হাজীর হয়ে নিজের হাতে এলাকার প্রায় চারশো দুঃস্থ পরিবারের ত্রাণ সামগ্রী হিসাবে তুলে দিলেন নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্যদ্রব্য।
এমন বিবাহ বার্ষিকী প্রসঙ্গে সমাজসেবী তথা কবি ফারুক আহমেদ সরদার বলেন “এলাকায় প্রায় সবসময় সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়ে চলেছেন ক্যানিং ১ পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যা স্বপ্না দাস ও তাঁর স্বামী মাতলা ২ পঞ্চায়েত প্রধান উত্তম দাস।আজ তাদের ২৫ তম বিবাহ বার্ষিকী। সেই বিবাহ বার্ষিকী রাজকীয় পরিবেশে পালন করতে পারতেন। কিন্তু সংকটময় পরিস্থিতিতে সাধারণ দরিদ্র পারিবারের পাশে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়ে যে ভাবে বিবাহ বার্ষিকী পালন করলেন তা গোটা দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলায় এক অন্যতম দৃষ্টান্ত। ”
ক্যানিং ১ পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যা স্বপ্না দাস বলেন “রাজ্যের মাননীয়া মূখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীর মানবিক আবেদন সাড়া দিয়ে দরিদ্র অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছি মাত্র। বর্তমানে করোনা ভাইরাস আর লকডাউনের জোড়া ফলায় বিদ্ধ সাধারণ দরিদ্র মানুষ।সেই সংকটময় পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে বিবাহ বার্ষিকী পালন না করে দুঃস্থদের কে সাহায্য সহযোগিতা করার মধ্যদিয়ে বিবাহ বার্ষিকী পালন করতে পেরে নিজেক গর্বিত মনে হয়েছে।”
অন্যদিকে মাতলা ২ গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান উত্তম দাস বলেন “প্রতিদিনই সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে সামর্থ্য অনুযায়ী ত্রাণ দেওয়ার কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছি। শনিবার ২০০ দুঃস্থ পরিবারের হাতে ত্রাণ তুলে দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু আমার স্ত্রী স্বপ্না দাস চারশো দুঃস্থ পরিবারের হাতে পর্যাপ্ত পরিমান খাদ্য সামগ্রী তুলে দিয়ে ভিন্ন ভাবে আমাদের বিবাহ বার্ষিকী পালন করায় আমি খুশি।”