মঙ্গলবার, ২১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

গভীর রাতে জীবাণু সাফাই,করোনা আতঙ্কে অতন্দ্র প্রহরায় রেল

News Sundarban.com :
মার্চ ২১, ২০২০
news-image

ক্যানিং -দেশের বৃহত্তম দফতর রেল। আর এই রেল কে সুরক্ষা দেওয়ার জন্য রয়েছে নিজস্ব বাহিনীও।যোগাযোগের জন্য রেলের উপর দেশের প্রায় সত্তর শতাংশ মানুষজন নির্ভরশীল।

করোনা ভাইরাস আক্রমণের হাত থেকে রেল কে জীবাণু মুক্ত করে স্বচ্ছ পরিষেবা ও যাত্রী স্বাচ্ছন্দ্য ফিরিয়ে আনতে বদ্ধ পরিকর।দেশের বিভিন্ন প্রান্তের দুরপাল্লা এক্সপ্রেস ট্রেন থেকে শুরু করে লোকাল ট্রেনগুলিতে জীবাণু মুক্ত করার জন্য ঝাড়পোঁচ দিয়ে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা রাখার পক্রিয়া শুরু করলো রেল দফতর।দুরপাল্লা মেল,এক্সপ্রেস গুলির মতো লোকাল ট্রেন গুলিকে ডিটারজেন্ট এবং বিভিন্ন রাসায়নিক ওষুধের মাধ্যমে ট্রেন গুলি পরিষ্কার করার কাজ শুরু হয়েছে।গত বৃহষ্পতিবার থেকে শিয়ালদহ দক্ষিণ শাখার ক্যানিং,ডায়মন্ডহারবার,লক্ষ্মীকান্তপুর,নামখানা,সোনারপুর সহ বারুইপুর শাখায় চালু হয়ে গিয়েছে।আর রাত জেগেই এমন অভিনব কাজ চলছে শিয়ালদহ দক্ষিণ শাখার এই সমস্ত লাইনের অন্তিম ষ্টেশনে।
যে সমস্ত অন্তিম ষ্টেশনে ট্রেন যাত্রাপথ শেষ হয় । সেখানে ঝাড়ুদাররা ঝাঁট দিয়ে পরিষ্কার করার পাশাপাশি বিভিন্ন রোগজীবাণু ধ্বংসকারী রাসায়নিক দিয়ে ট্রেন গুলি ভাইরাস মুক্ত করে তোলার চেষ্টা চলছে।উল্লেখ্য আগেই দিনের শেষে অন্তিম ষ্টেশনে শুধুমাত্র ঝাড়ু দিতেই দেখা যেতো। সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে করোনা ভাইরাস আটকাতে বাড়তি সংযোজন করলো রেল। ঝাঁট দিয়ে সাফাইয়ের পাশাপাশি হাতল,বসার সিট,পোল,দরজার হাতল,দরজা সহ সমস্ত ট্রেনগুলি প্রায় সাফ করার পক্রিয়া শুরু করে দিয়েছে।আর যাতে করে এই পরিষ্কার পরিচ্ছন্তা সঠিকমাত্রায় হয় তারজন্য রেলপুলিশও সজাগ রয়েছে । পাশাপাশি বিভিন্ন ষ্টেশনে করোনা ভাইরাস নিয়ে সচেতনতার পোষ্টার সাঁটানো হয়েছে এমনকি চলন্ত ট্রেনেও চলছে এবিষয়ে সচেতনা।
এই ঘটনার বিষয়ে দক্ষিণপূর্ব রেলের জনসংযোগ আধিকারীক নিখিল চক্রবর্তী জানিয়েছেন “গত বেশ কয়েকদিন ধরে এমন কর্মসূচি চালু হয়েছে। আর সাধারণত দিনের বেলায় ব্যস্ত সময়ে এমন কাজ করা অসম্ভব। যার জন্য রাতে ট্রেনগুলি অন্তিম ষ্টেশনে গিয়ে পৌঁছায় এবং প্রায় ঘন্টাতিনেক বন্ধ থাকে।ফলে সেই সময়ে ট্রেনগুলি সাফাই করার উপযুক্ত সময় । যার জন্য রাতে এমন পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার কাজ চলছে।