বুধবার, ২৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কুলপিতে হরিণের মাংস সহ গ্রেফতার ১

News Sundarban.com :
মার্চ ১০, ২০২০
news-image

সুভাষ চন্দ্র দাশ,ক্যানিং – গোপন সূত্রে খবর পেয়ে ওসি তরুন রায়, এসআই তনুময় দাসের নেতৃত্বে স্পেশাল পুলিশ টিম অভিযান চালিয়ে হরিণের মাংস সহ একজন কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।ধৃতের নাম প্রকাশ মাইতি।ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার কুলপি থানার নিশ্চিন্তপুর এলাকায়।স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে নিশ্চিন্তপুর এলাকার বাসিন্দা প্রকাশ মাইতি বেশ কিছু দিন ধরে গোপনে চোরা পথে হরিণের মাংস বিক্রি করছিল।এদিন সকালে চোরা পথে নামখানা থেকে নিশ্চিন্তপুর হরিণের মাংস নিয়ে আসছিল প্রকাশ মাইতি।আর এই খবর গোপন সুত্রে পেয়ে যায় পুলিশ । গোপন সূত্রে খবর পেয়ে কুলপি থানার ওসি তরুন রায় এবং এসআই তনুময় দাসের নেতৃত্বে পুলিশের স্পেশাল টিম নিশ্চিন্তপুর এলাকা ঘিরে ফেলে। শুরু হল চিরুনী তল্লাশি।প্রকাশ মাইতি হরিণের মাংস নিয়ে নিশ্চিন্তপুর ঢুকলে পুলিশ তাকে হাতে নাতে ধরে ফেলেন পুলিশ কর্মীরা।ধৃতের কাছ থেকে পুলিশ আট কেজি দুইশো সত্তর গ্রাম হরিণের মাংস উদ্ধার করেছে।এদিকে ধৃতকে বন দফতর ও পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে।কোথা থেকে এই হরিণের মাংস নিয়ে এলো এবং হরিণের মাংস কোথায় নিয়ে যাচ্ছিল সে বিষয়ে জিঞ্জাসাবাদের পাশাপাশি হরিণের চামড়া কি হল? সে বিষয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ ও বন দফতর।এদিকে উদ্ধার হওয়া মাংস ল্যাবে পাঠানো হয়েছে।
অন্যদিকে বেশ কিছু দিন আগে পুলিশ ও বন দফতর যৌথ অভিযান চালিয়ে মন্দিরবাজার থানার লক্ষ্মীকান্তপুরের বিজয়গঞ্জ বাজার এলাকা থেকে প্রায় ১ কোটি টাকা মূল্যের ২ টি হরিণের চামড়া সহ গ্রেফতার করে ২ জনকে।আর এই হরিণের মাংস সহ একজনকে গ্রেফতারের ঘটনায় বড়সড় সাফল্যের মুখ দেখলো বন দফতর ও পুলিশ। পুলিশ জানান গোপন সূত্রে খবর পেয়ে তল্লাশি অভিযান চালিয়ে হরিণের মাংস সহ ১ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।ধৃতের কাছ থেকে আট কেজি দুইশো সত্তর গ্রাম হরিণের মাংস উদ্ধার করা হয়েছে।তবে কিভাবে এবং কোথা থেকে এই মাংস নিয়ে কারবার করছিল সে বিষয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ ও বন দফতর।বন দফতর জানান হরিণের মাংস সহ একজনকে গ্রেফতার পুলিশ।এই কারবারের সঙ্গে আর কারা কারা যুক্ত আছে সে বিষয়েও গুরুত্ব সহ কারে খতিয়ে দেখা হচ্ছে।