বুধবার, ২৪শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ফাটা বেলুন গলার মধ্যে আটকে গিয়ে শিশুর মৃত্যু

News Sundarban.com :
মার্চ ৫, ২০২০
news-image

 

সুভাষ চন্দ্র দাশ,ক্যানিং -বুধবার সকালে বিশালক্ষ্মী ও মনসা পুজো উপলক্ষে মেলা চলছিল।এক শিশু একটি বেলুন নিয়ে খেলছিল। একসময় বেলুন ফোলাতে গিয়ে ফেটে যায়।সেই ফাটা বেলুন গলায় আটকে গিয়ে মৃত্যু হল এক শিশুর।মৃত শিশুর নাম শুভজিৎ বেরা।ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার ঢোলাহাট থানার দিগম্বরপুরের আট ঘেরি এলাকায়।স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে মৈইপীঠ কোষ্টাল থানার কিশোরি মোহনপুর গ্রামের​ বাসিন্দা নেপাল বেরা ও তাঁর স্ত্রী অপর্ণা বেরা তাঁদের বছর সাতেকের শিশুপুত্র শুভজিৎ বেরাকে নিয়ে শ্যালকের বাড়িতে বেড়াতে গিয়েছিলেন।নেপাল বেরার শ্যালক শিবশঙ্কর বাঁশ ছোট্ট ভাগ্নে শুভজিৎ বেরাকে কাছে পেয়ে আনন্দে মেতে উঠেন।এদিকে গ্রামে বিশালক্ষ্মী ও মনসা পুজো উপলক্ষে মেলা বসেছে।তাই এদিন ছোট্ট শুভজিৎ বেরা মামা বাড়ির বন্ধুদের সঙ্গে মেলায় যায়।মামার বাড়ি থেকে ঢিল ছোঁড়া দূরত্বে পুজো উপলক্ষে মেলা বসেছিল।আর এই মেলায় ছোট্ট শুভজিৎ বেরা বন্ধুদের সঙ্গে বেলুন নিয়ে খেলা করছিল।সে বেলুন নিয়ে মুখ দিয়ে ফোলাছিল।আর ফোলাতে ফোলাতে বেলুনটি ফেটে যায়।আর সেই ফাঁটা বেলুন মুখের মধ্যে টুকে গলায় আটকে যায় ছোট্ট শুভজিৎ বেরার।ফাটা বেলুন গলায় আটকে গেলে অন্যান্য বন্ধুরা চিৎকার চেঁচামেচি করতে থাকে।খবর পেয়ে ছুটে আসে শুভজিৎ বেরার পরিবারের সদস্যরা।তারা তাকে উদ্ধার করে গদামথুরা প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে।আর এই খবরে মৃত শিশুর পরিবারের সদস্যরা কান্নায় ভেঙে পড়ে।এলাকায় নেমে আসে শোকের ছায়া।এদিকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে পুলিশবাহিনী।পুলিশ দেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।পুলিশ​ সুত্রে জানাগেছে এক শিশুর দেহ উদ্ধার করা হয়েছে।কিভাবে শিশুটির মৃত্যু হল সে বিষয়ে গুরুত্ব সহকারে খতিয়ে দেখা হচ্ছে।